আউট হলেন সাব্বিরও

আপডেট: 01:01:08 07/09/2017



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : তৃতীয় দিন সকালে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসটাকে খুব একটা বাড়তে দেননি মুস্তাফিজুর রহমান। নাথান লায়নকে ফিরিয়ে দিয়ে সফরকারীদের ইনিংসটাকে ৩৭৭ রানেই থামিয়ে দেন কাটার মাস্টার। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৩০৫ রানের জবাবে অস্ট্রেলিয়ার ৭২ রানের লিড দাঁড়ায়। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই একের পর এক উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ।
এ্ই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের স্কোর ৯৭/৭। সাব্বির রহমান আউট হওয়ার পর নেমেছেন মমিনুল। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে তিনি দলকে কতটা এগিয়ে নিতে পারেন, তা দেখতে উন্মুখ সমর্থকরা।
এর আগে ব্যাটিংয়ের শুরুতেই ফিরে যান সৌম্য সরকার। প্যাট কামিন্সের বলে ম্যাট রেনশকে ক্যাচ দেন টাইগার ওপেনার। পুরো সিরিজেই নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন সৌম্য। ঢাকায় দুই ইনিংস মিলে ২৩ রান করার পর চট্টগ্রামে দুই ইনিংস মিলে মাত্র ৪২ রান করলেন তিনি।
সৌম্য ফেরার পর  তামিম-ইমরুল মিলে ইনিংসটাকে মেরামত করার চেষ্টা করছিলেন। তবে দলীয় ৩২ রানে নাথান লায়নের বলে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তিনি। আউট হওয়ার আগে ১২ রান করেন তামিম।
তামিমের পর ধৈর্য ধরে রাখতে পারেননি ইমরুল কায়েসও। লায়নের লাফিয়ে উঠা বলটা সামলাতে পারেননি তিনি। সামনে দাঁড়িয়ে থাকা ম্যাক্সওয়েল ক্যাচটি লুফে নেন।
এরপর সাকিব আল হাসানকে ওয়ার্নারের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান লায়ন। মাত্র ২ রান করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এরপর নাসির হোসেন ফিরলে ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিক শিবির।
দলের বিপদে এগিয়ে আসেন সাব্বির রহমান ও মুশফিক। ৪০ রানের জুটি বেঁধে বাংলাদেশকে লড়াইয়ে টিকিয়ে রেখেছেন তাঁরা।  
বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে আর একটি রানও যোগ করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। অসিদের মূলত ঠেকিয়ে দেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ৮৪ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ওয়ার্নার-স্মিথদের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে যান তিনি। 
বুধবার দিনের দুটি সেশনে ১৫২ রান যোগ করে অস্ট্রেলিয়া। আগের দিনের  ২ উইকেটে ২২৫ রান নিয়ে খেলা শুরু করা অসিরা শেষ পর্যন্ত ৩৭৭ রানেই থেমে যায়। ডেভিড ওয়ার্নার ১২৩, পিটার হ্যান্ডসকম্ব ৮২ অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ করেন ৫২ রান।  মুস্তাফিজ চারটি ও মেহেদী হাসান মিরাজ নেন তিন উইকেট।
এর আগে মুশফিকের ৬৮, সাব্বির রহমানের ৬৬ ও নাসির হোসেনের ৪৫ রানে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৩০৫ রান করেছে বাংলাদেশ। অসি বোলারদের মধ্যে নাথান লায়ন একাই নিয়েছেন সাত উইকেট।
সূত্র : এনটিভি

আরও পড়ুন