আজ কি কোনো খবর আসছে

আপডেট: 02:40:17 28/08/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ভবিষ্যৎ রাজনীতির গুণগত পরিবর্তন ও গ্রহণযোগ্য জাতীয় নির্বাচন আদায়ের দাবি সামনে রেখে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গঠন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে আজ একসঙ্গে বসতে পারেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। সন্ধ্যায় কামাল হোসেনের বেইলী রোডের বাসায় গণফোরাম নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে যুক্তফ্রন্টের অংশীদার জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্নাও অংশ নেবেন। বৈঠক থেকে জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে নেতারা জানিয়েছেন। জাতীয় ঐক্য গড়তে বেশ কিছুদিন ধরে যুক্তফ্রন্টের ব্যানারে অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আ স ম আবদুর রব ও মাহমুদুর রহমান মান্না চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন। অন্যদিকে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনও জাতীয় ঐক্যের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছিলেন। এ ঐক্য প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে গত ১৯শে আগস্ট বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর অব. আবদুল মান্নানের বাসায় বৈঠক করেন যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরাম নেতারা।
এ বৈঠকে আরো কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা অংশ নেন।
ওই বৈঠকে কিছু রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত হয়। পরের দিন করণীয় নিয়ে আরো বিস্তারিত আলোচনা করতে ড. কামাল হোসেনের বাসায় বৈঠক করার কথা থাকলেও বদরুদ্দোজা চৌধুরীর অসুস্থতার কারণে তা আর হয়নি। ওই বৈঠকটিই আজ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন গণফোরামের কার্যকরি সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী। তিনি বলেন, মঙ্গলবারের বৈঠকটি ফলোআপ বৈঠক। আগামী ২২শে সেপ্টেম্বর জাতীয় ঐক্য সামনে রেখে যে মহাসমাবেশ করার পরিকল্পনা রয়েছে এ বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে। এছাড়া জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার রূপরেখা নিয়েও নেতারা কথা বলবেন। সবকিছু চূড়ান্ত হলে খুব শিগগির সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয় ঐক্যের ঘোষণা দেয়া হবে। বৈঠকের বিষয়ে জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন বলেন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বৈঠক হচ্ছে। এখনও কোনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি। আলোচনা করেই একটি রূপরেখা তৈরি হবে। এদিকে ঐক্য প্রক্রিয়ায় শুরু থেকে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর অংশ নেয়া নিয়ে আলোচনা থাকলেও তিনি এখনো তার অবস্থান পরিষ্কার করেননি। এ বিষয়ে আবদুল মালেক রতন বলেন, তিনি এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেননি।
ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত নেতারা জানিয়েছেন, মেজর আব্দুল মান্নানের বাসায় অনুষ্ঠিত বৈঠক থেকেই জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে একমত হন অধ্যাপক বি. চৌধুরী ও ড. কামাল হোসেন। ঐক্য প্রক্রিয়ার রূপরেখা এবং লক্ষ্য উদ্দেশ্য প্রণয়ন এবং অন্য রাজনৈতিক দলকে এ প্রক্রিয়ায় যুক্ত করার বিষয়ে বিস্তারিত কৌশল নির্ধারণে ধারাবাহিক বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ওই বৈঠকে। নেতারা জানিয়েছেন, ঐক্য প্রক্রিয়ার রূপরেখা তৈরি হলে অন্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা শুরু করবেন তারা। আগামী ২২শে সেপ্টেম্বরের আগেই সরকারের বাইরে থাকা বিরোধী রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা শেষ করার লক্ষ্য রয়েছে। ঐক্য প্রক্রিয়ায় যুক্ত হতে আগ্রহী দলগুলোকে নিয়েই ২২শে সেপ্টেম্বর মহাসমাবেশ করার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার উদ্যোক্তারা।
[মানবজমিনের বিশ্লেষণ]