আফ্রিকায় গুলিতে নিহত সাতক্ষীরার সৈনিক রহিম

আপডেট: 02:04:41 07/01/2017



img
img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : জাতিসংঘ শান্তি মিশনে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সেন্ট্রাল আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের নিহত হয়েছেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গা এলাকার সেনাসদস্য আব্দুর রহিম। তিনি হাজিপুর গ্রামের কৃষক আব্দুল মাজেদের ছেলে ও এক সন্তানের জনক।
বৃহস্পতিবার রাতে এক সহকর্মী রহিমের শ্যালক সাইফুল ইসলামকে ফোন করে বিষয়টি জানান। ঘটনাটি জানার পর থেকেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারসহ গোটা এলাকায়।
বাবা আব্দুল মাজেদ ফোন করা সেনাসদস্যের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার বিকেলে রহিম সেন্ট্রাল আফ্রিকার একটি স্থানে দাঁড়িয়ে ছিলো। এ সময় দুর্বৃত্তরা হেলিকপ্টারযোগে এসে ওপর থেকে গুলি চালায়। আব্দুর রহিম গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।’
কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, ‘২০০৫ সালে রহিম সেনাবাহিনীতে যোগ দেয়। প্রথমে কুমিল্লা সেনানিবাস পরে ঢাকা সেনানিবাসে ছিলো। একমাস ১৯ দিন আগে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জাতিসংঘ শান্তি মিশনে গিয়েছিল। সবশেষ দুই মাস আগে সে বাড়িতে এসেছিলো।’
পারিবারিক সূত্রে বলা হয়েছে, ১৯৮৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর জন্ম গ্রহণ করেন আব্দুর রহিম। চাকরি পাওয়ার পর ২০১২ সালে যশোর জেলার ঝিকরগাছা এলাকার রাজবাড়িয়া গ্রামের রাজিয়া সুলতানাকে বিয়ে করেন আব্দুর রহিম। আহনাফ আল ফারাবি নামে পাঁচ মাসের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে এই দম্পতির।
ছেলের মৃত্যুসংবাদ পাওয়ার পর রহিমের মা রওশন আরা শোকে মূর্ছা যাচ্ছেন। মরদেহ কবে নাগাদ দেশে ফিরবে তা কেউ নিশ্চিত করতে পারেননি।
সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফিরোজ হোসেন মোল্লা বলেন, ‘অফিশিয়ালি এখনো কোনো সংবাদ আমাদের কাছে আসেনি।’

আরও পড়ুন