আমিরুল ‘হত্যায়’ মামলা হলো, আসামি ১৯

আপডেট: 02:19:35 03/12/2018



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের বেনাপোলে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আমিরুল ইসলাম নিহতের ঘটনায় ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে বেনাপোল পোর্ট থানায় হত্যা মামলা হয়েছে।
রোববার সকালে নিহত আমিরুলের ছেলে সাগর বাদী হয়ে ১৯ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচজনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে ২৪ জনের নামে মামলাটি করেন।
মামলা হওয়ার পর পুলিশ দুপুরে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, বেনাপোলের কাগজপুকুর গ্রামের আব্দুল মতলেবের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪৭), গোলাম নাড়ুর ছেলে সাত্তার আলী (৫২) এবং কাগমারী গ্রামের ছাত্তার ওরফে ছাত্তার ডাকাতের ছেলে আরিফ (৪০)।
বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিম বলেন, আমিরুল ইসলাম হত্যা মামলায় তিন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের যশোর আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
আমিরুল ইসলামের নামে বেনাপোলসহ বিভিন্ন থানায় হত্যা, বিস্ফোরক, অস্ত্রসহ ১৬টি মামলা রয়েছে বলেও জানান তিনি।
শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার সময় বেনাপোলের কাগজপুকুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনে বোমা বিস্ফোরণে নিহত হন আমিরুল ইসলাম। প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে বোমা মেরে হত্যা করেছে বলে দাবি করা হয়। তবে যশোরের পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, নিজের কাছে থাকা বোমা বিস্ফোরণে মারা পড়েছেন আমিরুল।

আরও পড়ুন