আসামের ৪০ লাখ মানুষ রাষ্ট্রহীন হওয়ার পথে!

আপডেট: 02:30:39 30/07/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ভারতের খসড়া নাগরিকপঞ্জির সংশোধিত তালিকা থেকেও উত্তর-পূর্ব আসাম রাজ্যের প্রায় ৪০ লাখ বাসিন্দা বাদ পড়েছেন।
সোমবার দেশটির ন্যাশনাল রেজিস্টার অব সিটিজেন্স (এনআরসি) সংশোধিত এ খসড়াটি প্রকাশ করে।
এতে নাগরিক হিসেবে আসামের দুই কোটি ৮৯ লাখ মানুষের নাম ঠাঁই হলেও তিন কোটি ২৯ লাখ আবেদনকারীর বাকিরা বাদ পড়েন।
চলতি বছরের ১ জানুয়ারি প্রকাশিত প্রথম তালিকায় মাত্র এক কোটি ৮০ লাখ মানুষের নাম ছিল।
১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের আগে রাজ্যে আবাস গেড়েছেন এমন প্রমাণ না পাওয়ায় সংশোধিত তালিকায় ৪০ লাখ আবেদনকারীর নাম রাখা হয়নি বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 
‘অবৈধ বাংলাদেশিদের’ চিহ্নিত করে তাদের ফেরত পাঠানোর লক্ষ্যেই এএনআরসির এ নাগরিকপঞ্জি চূড়ান্ত করা হচ্ছে বলে এর আগে জানিয়েছিল আসাম সরকার।
সোমবার প্রকাশিত তালিকাটিও চূড়ান্ত নয়; যাদের নাম নেই তারা আপিল করার সুযোগ পাবেন।
তালিকায় নাম না থাকাদের এখনই বের করে দেওয়া হবে না বলে কর্মকর্তারা আশ্বস্ত করলেও এর মাধ্যমে আসামের সংখ্যালঘু বাঙালি বিশেষত মুসলমানদের ‘উইচ হান্টিং’য়ের শিকার হতে হবে বলে আশঙ্কা অনেক পর্যবেক্ষকের।
খসড়া এ তালিকা ঘিরে ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্যটিতে সংঘাত ও সংঘর্ষের শঙ্কায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনীকেও যে কোনো পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকতে বলা হয়েছে।  
পরিস্থিতি মোকাবেলায় আধাসামরিক বাহিনীর ২৩ হাজার সদস্যকে আসাম পাঠানো হয়েছে। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সতর্কতা জারি হয়েছে রাজ্যটির প্রতিবেশী মেঘালয়, মণিপুর, নাগাল্যান্ড ও অরুণাচল প্রদেশেও।
বাদ পড়া আবেদনকারীরা আগামী ৩০ আগস্ট থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তালিকায় নাম ওঠাতে আপিল করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন রেজিস্টার জেনারেল অব ইন্ডিয়া শৈলেশ।
“আপত্তি করার জন্য জনগণকে পর্যাপ্ত এবং যথেষ্ট সুযোগ দেওয়া হবে। কোনো প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকের ভয় পাওয়ার কারণ নেই,” বলেছেন তিনি।
সূত্র : এনডিটিভি, আনন্দবাজার, বিডিনিউজ

আরও পড়ুন