ই-টোকেন খতম করা হচ্ছে : শ্রিংলা

আপডেট: 06:51:23 12/01/2017



img

স্টাফ রিপোর্টার : বুধবার সন্ধ্যায় যশোরে ভারতীয় ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার (আইভিএসি) আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা।
বাংলাদেশের ১২তম এই ভিসা কেন্দ্র উদ্বোধনকালে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ‘যশোর বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের অন্যতম প্রবেশদ্বার। এছাড়া বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রায় ৫০ ভাগ বেনাপোল-পেট্রাপোলের মধ্যে হয়ে থাকে। এ জন্য যশোরের অনেক গুরুত্ব রয়েছে। তাই এ অঞ্চলের মানুষের সুবিধার্থে যশোরে এই ভিসা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।’
অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘ভারতীয় ভিসা পদ্ধতির জন্য ই-টোকেন ব্যবস্থা খতম করা হচ্ছে। যা ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন করা শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে তা বাস্তবায়ন করা হবে।’
তিনি বলেন, ‘অচিরেই এ অঞ্চলের মানুষ ট্রেনে করে ভারতে যেতে পারবেন। রেলসংযোগের সময় যশোরে স্টপেজ করা হবে। আশা রাখি বাংলাদেশ সরকার এ বিষয়ে আমাদের সাথে পরামর্শ করে সার্বিক ব্যবস্থা নেবে।’
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণের জন্য আমরা ভিসা পদ্ধতি সহজ করছি। কারণ বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর বিপুল সংখ্যক লোক আমাদের দেশে যাতায়াত করে থাকেন। ২০১৬ সালে আমরা ১০ লক্ষাধিক মানুষকে ভিসা দিয়েছি। ২০১৭ সালে এটি আরো সহজ করা করা হবে।’
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্য, স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার আন্তর্জাতিক বিভাগের চিফ জেনারেল ম্যানেজার সুজিতকুমার ভার্মাসহ যশোর জেলা প্রশাসন ও স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার কর্মকর্তারা। 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ২০১৬ সালে নেওয়া ভ্রমণ টিকিটের মাধ্যমে ভিসা গ্রহণ স্কিম সফল হয়েছে। পহেলা জানুয়ারি থেকে ওই স্কিম আরো বর্ধিত করা হয়েছে। ঢাকার বাইরে এই স্কিমটি দ্রুত চালুর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান তিনি।
উদ্বোধন শেষে আবেদনকারীদের মধ্যে দশজনকে ভিসা দেন অতিথিরা।

আরও পড়ুন