উত্তুঙ্গ ফর্মে মোহাম্মদ সালাহ

আপডেট: 02:38:39 16/04/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : আট বছরের পেশাদার ক্যারিয়ার। এএস রোমায় থাকতেই জাত চিনিয়েছেন। কিন্তু লিভারপুলে যোগ দেওয়ার পর থেকেই মোহাম্মদ সালাহ প্রমাণ করে চলছেন তিনি এখন বিশ্বমানের। মেসি, রোনালদোদের সঙ্গেও তুলনা টানা হয় তার!
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের জার্সিতে এটাই তার প্রথম মৌসুম। অলরেডদের হয়ে গোলের পর গোল করছেন ২৫ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। কাল যেমন বোর্নমাউথের বিপক্ষে লিভারপুলের ৩-০ ব্যবধানের জয়ে ৬৯ মিনিটে করেছেন দুর্দান্ত একটি গোল। ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আর্নল্ডের দূরপাল্লার পাস দারুণ নিয়ন্ত্রিত হেডে জড়িয়েছেন জালে। লিগে এ নিয়ে ৩০ গোল করলেন সালাহ। অর্থাৎ ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ৩০ গোলের কোটা ছুঁলেন মিসরের এ ফরোয়ার্ড। ২৯ গোল নিয়ে দুইয়ে লিওনেল মেসি। বার্সা ফরোয়ার্ড কাল ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে গোল পাননি। সুযোগটার সদ্ব্যবহার করে মেসিকে টপকে যেতে ভুল করেননি লিভারপুল তারকা।
‘ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু’ পুরস্কার জয়ের দৌড়ে সালাহ এখন শীর্ষে। ২৯ গোল নিয়ে দ্বিতীয় মেসি। শুধু কি তাই? আফ্রিকার প্রথম ফুটবলার হিসেবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৩০ গোলের মাইলফলকও গড়েছেন সালাহ। এ পথে তিনি ভেঙেছেন আইভরি কোস্টের সাবেক চেলসি স্ট্রাইকার দিদিয়ে দ্রগবার গড়া ২৯ গোলের মাইলফলক। সালাহ লিগে আর এক গোল করলেই ছুঁয়ে ফেলবেন অ্যালেন শিয়ারার, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও লুই সুয়ারেজের রেকর্ড। প্রিমিয়ার লিগে ৩৮ ম্যাচের মৌসুমে সর্বোচ্চ ৩১ গোল করেছিলেন তারা।
বোর্নমাউথের বিপক্ষে কাল গোল করে আরো একটি রেকর্ড গড়েছেন সালাহ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের এক মৌসুমে ভিন্ন ভিন্ন ২২টি ম্যাচে গোল করলেন তিনি। এর আগে রবিন ফন পার্সি ও রোনালদোর ছিল রেকর্ডটি (২১)। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৪৫ ম্যাচে এ নিয়ে ৪০ গোল সালাহর। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে তার আগে সর্বশেষ কোনো খেলোয়াড় সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ন্যূনতম ৪০ গোলের কোটা ছুঁয়েছিলেন ২০০৭-০৮ মৌসুমে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ৪২ গোল করেছিলেন রোনালদো।
এখানেই শেষ নয়। লিভারপুলের ইতিহাসে তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে এক মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ন্যূনতম ৪০ গোল করলেন সালাহ। এর আগে ইয়ান রাশ ও রজার হান্ট ৪০ গোলের দেখা পেয়েছেন। লিভারপুল কিংবদন্তি রাশ একাই দুইবার তা করছেন। লিভারপুলের হয়ে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ৪৭ গোলের মাইলফলকও (১৯৮৪-৮৫) রাশের গড়া। তার এই কীর্তি টপকে যেতে সালাহ হাতে পাচ্ছেন অন্তত ৬ ম্যাচ-লিগে ৪ চার ও চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমির ২ লেগ। সালাহ যে উত্তুঙ্গ ফর্মে আছেন, রাশের মাইলফলকটি কিন্তু হুমকির মুখে!
সূত্র : প্রথম আলো