উড়োজাহাজে বাংলাদেশি তরুণের কাণ্ড

আপডেট: 02:17:00 06/03/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : একটি আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে কী করেননি তরুণটি! ল্যাপটপে অশ্লীল ছবি দেখেছেন। তাও নগ্ন হয়ে! ওই অবস্থাতেই তিনি শৌচাগারে গেছেন। উড়োজাহাজের কর্মীরা বাধা দিলে তাদের ওপর হামলা করেছেন। কারো কথা তো শোনেনইনি, করেছেন আরো জঘন্য কাজ।
গত শনিবার মালিন্দা এয়ারের একটি ফ্লাইটে এসব ঘটনা ঘটান এক বাংলাদেশি তরুণ। ফ্লাইটটি মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর থেকে ঢাকায় আসছিল। সব কাণ্ডকীর্তিই তিনি করেছেন উড়োজাহাজটি যখন ছিল মেঘেরও ওপরে!
ঘটনাটি প্রকাশ পেলে সোমবার একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম তা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তরুণের কাজকর্মের ছবিও ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে। আর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও ফলাও করে প্রচার হয় ‘বাংলাদেশি তরুণের কাণ্ডকীর্তি।’
মালয়েশিয়াভিত্তিক দ্য স্টার অনলাইন জানায়, ২০ বছর বয়সী ওই তরুণ নিজেকে সাইবারজায়া এলাকার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে দাবি করেছেন। তবে ওই প্রতিবেদনে তরুণটির নাম প্রকাশ করা হয়নি।
সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে ওই তরুণটির একাধিক ছবি। আছে তরুণটির পাসপোর্টের ছবিও। সেখানে নাম মুছে ফেলা হয়েছে। তবে পাসপোর্টে জন্মস্থান দেওয়া আছে নোয়াখালী।
ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্লাইটটি আকাশে ওড়ার পরই অদ্ভূত কাণ্ডকীর্তি করতে থাকেন তরুণটি। নিজের আসনে ল্যাপটপ চালু করে পর্নো চলচ্চিত্র দেখতে থাকেন। একপর্যায়ে গায়ের সব পোশাক খুলে নগ্ন হয়েই পর্নো দেখতে থাকেন তিনি। ওই অবস্থায় হস্তমৈথুনও করেন। এতেও থেমে ছিলেন না তিনি। নগ্ন হয়েই শৌচাগারে যান।
ফ্লাইটের অন্য যাত্রীরা বিব্রত ও বিরক্তিকর অবস্থার মধ্যে পড়েন। এ সময় একাধিকবার উড়োজাহাজের কর্মীরা ওই তরুণকে কাপড় পরতে অনুরোধ করেন। কিন্তু ওই তরুণ তা না শুনে উল্টো তাদের ওপর হামলা করেন।
পরে অন্য যাত্রীদের সাহায্যে ওই তরুণের হাত বেঁধে ফেলা হয়। ওই অবস্থাতেই ঢাকায় আনা হয় তাকে। বিমানবন্দরেই তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।
নিজেদের ফেসবুক পেজে দুই লাইনে বিষয়টি জানিয়েছে মালিন্দা এয়ার। তবে এও জানিয়েছে যাত্রীদের ভ্রমণ আকর্ষণীয় করতে ভবিষ্যতে আরো সতর্ক থাকবে এয়ারলাইন্সটি।
সূত্র : এনটিভি, বিবিসি

আরও পড়ুন