কালীগঞ্জে স্টেডিয়াম তৈরির নামে বিজুর কলাক্ষেত সাবাড়

আপডেট: 03:18:30 04/09/2017



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : কালীগঞ্জে স্টেডিয়াম তৈরি করার কথা বলে নয় বিঘা জমির প্রায় সাড়ে তিন হাজার ফলবতী কলাগাছ কেটেছে দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে কালীগঞ্জ মেইন বাস্ট্যান্ডের পাশে রেলওয়ের একটি জমিতে এই গাছ কেটে সাবাড় করা হয়। কালীগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র বিজু বাংলাদেশ রেলওয়ের কাছ থেকে এই জমিটি লিজ নিয়ে এক যুগ ধরে কলা চাষ করে আসছিলেন।
এ ঘটনায় পৌরসভার সাবেক মেয়র ও আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বিজু অভিযোগ করে বলেন, ‘রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা স্টেডিয়াম তৈরির অজুহাত দেখিয়ে আমার প্রায় সাড়ে তিন হাজার কলাগাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে। গত ১২ বছর ধরে আমি রেলওয়ের কাছ থেকে এই জমি লিজ নিয়ে চাষ করে আসছি। চলতি বছরও লিজের টাকা পরিশোধ করা আছে।’
সাবেক এই মেয়র আরো দাবি করেন, তার জমির প্রায় সব কলাগাছই ধরন্ত ছিল। এই কলা চাষ করতে এবছর পাঁচ লক্ষাধিক টাকা খরচ হয়েছে। তিনি আশা করছিলেন অল্প কয়েকদিন পরেই প্রায় ১২ লাখ টাকার কলা বিক্রি করবেন।
বিজুর ভাষ্য, ‘স্টেডিয়াম তৈরি করবেন, ভালো কথা। কিন্তু সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কেউ আমাকে জানায়নি। জানালে আমি নিজে জমি পরিষ্কার করে দিতাম। কিন্তু  রাতের আঁধারে কেন আমার জমিতে হামলে পড়ে লাখ লাখ টাকার ফসল নষ্ট করা হলো?’
এ ব্যাপারে জানাতে চাইলে রেলওয়ের খুলনা অঞ্চলের স্টেট বিভাগের ফিল্ড কানুনগো জিয়াউর রহমান বলেন, ‘কালীগঞ্জের সাবেক মেয়র ওই জমি লিজ নিয়ে চাষ করছেন। কিন্তু সেখানে স্টেডিয়াম তৈরি করা হচ্ছে- এমন কোনো খবর আমার জানা নেই। অফিসিয়াল কোনো নির্দেশনা আমি পাইনি।’
তিনি বলেন, ‘রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ মনে করলে এই জমির যে কোনো স্থাপনা ভেঙে যে কোনো সময় দখল নিতে পারে। এতে কোনো সন্দেহ নেই।’
কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ছাদেকুর রহমান বলেন, ‘উপজেলায় একটি মিনি স্টেডিয়াম হবে এটার নির্দেশনা আছে। কিন্তু রেলওয়ের জমিতে স্টেডিয়াম তৈরি করতে হলে ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও রেল মন্ত্রণালয়কে এক জায়গায় বসে বিষয়টি সমাধান করতে হবে।’
‘ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে জমির ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা আমি পাইনি,’ যোগ করেন ইউএনও।

আরও পড়ুন