কাল আখেরি মোনাজাত, হতে পারে বাংলায়

আপডেট: 01:36:07 13/01/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ভারতের মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভিকে নিয়ে বিতর্ক ওঠার পর তিনি এবার টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না। ভারতের মাওলানা জোবায়রুল হাসান মারা যাওয়ার পর মাওলানা সাদই বিশ্ব ইজতেমার হাল ধরেছিলেন। বিশ্ব ইজতেমায় উর্দুতে বয়ান করা ছাড়াও তিনি একই ভাষায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করতেন। কিন্তু এবার আখেরি মোনাজাত ও হেদায়াতি বয়ান দুটোই হবে বাংলায়।
বিশ্ব ইজতেমার মুরুব্বি প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, এবার বিশ্ব ইজতেমায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের কাকরাইলের মাওলানা হাফেজ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে হেদায়তি বয়ান হয়, তা করবেন বাংলাদেশি মাওলানা আব্দুল মতিন।
রোববার বেলা ১১টায় আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।
শুক্রবার রাতে তাবলিগ জামাতের মুরুব্বীদের নিয়ে এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে এ বিষয়ে আর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি বিশ্ব ইজতেমার মুরুব্বি প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন।
তবে তাবলিগ জামাতের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপর এক শীর্ষ মুরুব্বি বলেন, আখেরি মোনাজাত হবে আরবিতে কিংবা উর্দুতে।
শুক্রবার ফজরের নামাজের পর শুরু হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম দফা। রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে প্রথম পর্বের ইজতেমা। চারদিন বিরতি দিয়ে ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব, ২১ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের ইজতেমা।
প্রায় ১০০ বছর আগে ইসলামের দাওয়াতি কাজকে ত্বরান্বিত করতে মাওলানা ইলিয়াছ শাহ (রহ.) দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদ থেকে তাবলিগের কাজ শুরু করেন। মাওলানা ইলিয়াছের (রহ.) ছেলে মাওলানা হারুন (রহ.)। তারই ছেলে হলেন মাওলানা সাদ কান্ধলভি।
২০১৫ সাল থেকে মাওলানা সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালানা করে আসছেন। এর আগে তিনি টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে শুধু তাবলিগের বয়ান দিতেন।
সূত্র : এনটিভি