কুষ্টিয়ায় পাঁচ শতাধিক গাছ হাপিস

আপডেট: 07:32:33 26/04/2019



img
img
img

শ্যামলী খন্দকার, কুষ্টিয়া : কোনো অনুমতি বা টেন্ডার ছাড়াই কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার চারমাইল থেকে মশান পর্যন্ত পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা থেকে ১৫ বছরের পুরনো শিশু, মেহগনি, কড়াই ও নিমসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাঁচ শতাধিক গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে।
এলাকার তাঁতিবন্দ মসজিদ ও মাদরাসার উন্নয়নের কথা বলে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর আঞ্চলিক মহাসড়েকর পাশ থেকে এই গাছগুলো কাটা হয়েছে। সরকারি এসব কাউকে না জানিয়ে গত কয়েকদিন ধরে কেটে বিক্রি করে দিয়েছে প্রভাবশালী চক্রটি।
এই ঘটনায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে মিরপুর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।
স্থানীয় তাঁতিবন্দ মসজিদ ও মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন এই গাছ নিজেদের দাবি করে বলেন, ভরাট হয়ে যাওয়া গঙ্গা-কপোতাক্ষ (জিকে) সেচ প্রকল্পের খাল পুনরুদ্ধার প্রকল্পের খনন কাজ শুরু হওয়ায় ঠিকাদারের লোকজন গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছিল। তাই কাউকে কিছু না জানিয়ে তড়িঘড়ি করে তারা গাছগুলো কেটে নিয়েছেন।
আর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পীযূষকৃষ্ণ কুণ্ডু বলছেন, তারা কাউকে গাছ কাটার বিষয়ে কোনো আদেশ দেননি। আর এই জায়গা কোনো প্রতিষ্ঠানকে লিজও দেওয়া হয়নি। তাই গাছ কাটার বিষয়ে কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।
মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোহাম্মদ লিখন। কেটে নেওয়া বেশ কিছু গাছের গুঁড়ি ইতিমধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন