কোটচাঁদপুরে শিশুটির গলা কাটলো কে?

আপডেট: 06:37:34 12/10/2018



img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে নির্মমভাবে শিশু হত্যায় জড়িতদের শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। তবে এক সন্দেহজনক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।
মিম (৭) নামে ওই শিশুটিকে গলা কেটে হত্যা করা হয় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যারাতে। শিশুটির বাড়ির পাশেই এই ঘটনা ঘটে।
নিহত মিম উপজেলার জালালপুর গ্রামের ইয়াকুব হোসেন খোকার মেয়ে। সে গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।
ঘটনার দিন সন্ধায় সে নিখোঁজ হয়। তার খোঁজে গ্রামের মসজিগুলোর মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপর রাত নয়টার দিকে প্রতিবেশীর পরিত্যক্ত বাড়িতে তার গলাকাটা রক্তাক্ত মৃতদেহ পাওয়া যায়।
যে বাড়িতে মিমের মৃতদেহ পাওয়া গেছে, সেটির মালিক একই গ্রামের মশিয়ার রহমান মণ্ডল।
আজ শুক্রবার সকালে হাবিবুর নামে এক সন্দেহভাজন যুবককে আটক করে পুলিশ। আটক যুবক প্রতিবেশী মোশারফ হোসেনের ছেলে।
মিমের বাবা কৃষিজমিতে শ্রমিকের কাজ করেন বলে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন। শিমুল নামের একটি ছেলে রয়েছে মোশারফের।
কোটচাঁদপুর থানার ওসি বিপ্লবকুমার জানান, কারা কী কারণে শিশুটিকে খুন করেছে, তা এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। সন্দেহভাজন এক যুবককে আটক করা হয়েছে। ক্লু উদ্ঘাটনে পুলিশের একটি টিম কাজ করছে।

আরও পড়ুন