কোটিপতি ব্যবসায়ীকে দশ টাকার চালের কার্ড!

আপডেট: 09:59:07 22/12/2016



img

আনোয়ার হোসেন, মণিরামপুর (যশোর) : যশোরের মণিরামপুর উপজেলার জলকর রোহিতা গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে তরিকুল ইসলাম (৩৮)। পাশের উপজেলা কেশবপুরে তার একটি ইটভাটা রয়েছে। রোহিতা ইউনিয়নের বড় সার ডিলারদের মধ্যে তিনি একজন। তাছাড়া ৩-৪টি মাছের ঘেরও রয়েছে তার।
এতকিছুর মালিক এই মানুষটির কাছে রয়েছে গরিবের জন্য বরাদ্দকৃত দশ টাকার চালের কার্ড । তিনি দুই দফায় ৬০কেজি চালও উত্তোলন করেছেন।
সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদসহ স্থানীয়দের দেয়া তথ্য মতে, ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জলকর রোহিতা গ্রামের বাসিন্দা তরিকুল ইসলামের নাম রয়েছে তালিকায় ৭৫ নম্বর সিরিয়ালে। মণিরামপুর-ঝিকরগাছা সড়কের ধারে বাড়িসংলগ্ন তার বড় সারের গুদাম। ওই ব্যবসায় তার ১০-১৫ লাখ টাকা ইনভেস্ট করা আছে। তাছাড়া ইটভাটা ও ঘেরসহ দামি একটি বাইক রয়েছে তার। ব্যবসা করার আগে বছর দশেক তিনি প্রবাসে ছিলেন। তার নামে চালের কার্ড হওয়ায় হতবাক এলাকাবাসী। তারা বলছেন, তরিকুলের বাড়ির পাশে বহু গরিব মানুষ আছে, অথচ তাদের নামে কার্ড ইস্যু হয়নি। কিন্তু তরিকুলের নামে কার্ড হল কীভাবে? এই প্রশ্ন এখন সবার মুখে মুখে।
তারা বলছেন, এই চাল তরিকুল খাবে না, খাওয়াবেন ঘেরের মাছকে।
তরিকুল কীভাবে চালের কার্ড পেলেন এমন প্রশ্নে ওই ওয়ার্ডের মেম্বর মহিতুল ইসলাম বলেন, ‘তাকে চালের কার্ড আমি দিইনি। দিয়েছেন মকবুল।’
মকবুল স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দল করে, সেই সূত্রে তরিকুল কার্ড পেয়েছেন।’
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনছার আলী জানান, বুধবার দুপুরে তিনি বিষয়টি শুনেছেন। ওই সময় পরিষদে উপস্থিত নেতাকর্মীদের তিনি অনেক বকাঝকাও করেছেন। কীভাবে তরিকুলের নামে কার্ড হয় এটা তার মাথায় আসে না।
তিনি বলেন, ‘তরিকুল চালের কার্ড পাবে- এটা প্রশ্নেই ওঠে না। তাছাড়া আমি নিজেতো এই তালিকা করিনি, ওরাই করেছে।’
বৃহস্পতিবার ইউনিয়ন পরিষদের মিটিংয়ে তরিকুলের নাম বাদ দেয়া হবে বলে জানান চেয়ারম্যান।
এই বিষয়ে জানতে একাধিকবার তরিকুলের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন, ‘বিভিন্ন ইউনিয়নের চালের কার্ডের তালিকা যাচাই-বাছাই করে পাওয়ার যোগ্য নয় এমন অনেকের নাম বাদ দেয়া হয়েছে। রোহিতা ইউনিয়নের তালিকা বাকি আছে। দ্রুত সেটা যাচাই-বাছাই হবে। সেখান থেকেও পাওয়ার অযোগ্যদের নাম বাদ দিয়ে সেই স্থানে গরিবদের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’

আরও পড়ুন