খুলনায় নৌশ্রমিক খুন, আটক ৩

আপডেট: 02:00:07 12/03/2018



img

খুলনা অফিস : খুলনায় মো. আমিরুল ইসলাম ওরফে আমিরুল্লাহ (১৮) নামে এক নৌযান শ্রমিককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ নদীতে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রোববার নগরীর শিরোমণিতে বিএডিসির সার গোডাউন-সংলগ্ন ভৈরব নদের ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ডুবুরি দিয়ে অভিযান চালিয়ে বিকেলে তার মরাদেহ উদ্ধার করেছে।
এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ কার্গো ‘এমভি লুবনা’র ভাড়াটিয়া মালিক শামীম মিয়াসহ তিনজনকে আটক করেছে।
নিহত আমিরুল ইসলাম ওরফে আমিরুল্লাহ খুলনার তেরখাদা উপজেলার আনন্দনগর গ্রামের শেখ ইসমাইল হোসেনের ছেলে। সে এমভি লুবনা কার্গোতে শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিল।
পুলিশ জানায়, আমিরুল ইসলামকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না মর্মে রোববার সকালে কার্গোর ভাড়াটিয়া মালিক শামীম মিয়া ফোন করে তার ভাই শহীদুলকে খবর দেন। খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসেন। তারা দেখতে পান, আমিরুলকে খুঁজে বের করতে মালিক পক্ষের কোনো তৎপরতা নেই। যে কারণে পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি খানজাহান আলী থানা পুলিশকে জানায়।
পুলিশ খবর পেয়ে ডুবুরি দিয়ে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে বিকেল পৌনে তিনটার দিকে লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে শামীম মিয়া, খোকন সরদার ও আব্দুর রশীদকে আটক করেছে পুলিশ।
খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী বলেন, ‘নিহতের কপাল, কান ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে হত্যাকাণ্ডের কারণ উদ্ঘাটনের চেষ্টা করা হচ্ছে।’

আরও পড়ুন