খুলনা-ঢাকা রুটে চিত্রার নবযাত্রা

আপডেট: 01:43:46 23/08/2016



img
img

খুলনা অফিস : খুলনা-ঢাকা রুটে এবার লাল-সবুজ রঙের ‘চিত্রা’র সঙ্গে নতুন কোচ যোগ করে নবযাত্রা শুরু হয়েছে।
মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে এর যাত্রা শুরু হলো। সকাল সাড়ে আটটায় খুলনা রেলস্টেশন থেকে ৮৮২ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় ট্রেনটি।
এর আগে খুলনা রেলস্টেশনের প্লাটফর্মে চিত্রা এক্সপ্রেসের নতুন কোচ যাত্রার উদ্বোধন করেন রেল মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান মিজান এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সামসুজ্জামান মিয়া স্বপন।
বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিকলীগের খুলনা শাখার সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন হাওলাদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মোতালেব মিয়া।
খুলনা রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার কাজী আমিরুল ইসলাম জানান, পুরনো কোচগুলো পাল্টে ভারত থেকে আনা আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসম্বলিত নতুন কোচ যুক্ত হয়ে নবরূপে যাত্রা শুরু হওয়া এ ট্রেনটির কোচ ও আসন সংখ্যা দুইই বেড়েছে। আগে চিত্রা এক্সপ্রেসে সাতটি বগিতে আসন সংখ্যা ছিল ৬৯০। এখন পাঁচটি বগি বৃদ্ধি পাওয়ায় ট্রেনে ৮৮২ জন যাত্রী খুলনা-ঢাকা যাতায়াত করতে পারবেন।
খুলনা থেকে ছেড়ে যাওয়া চিত্রা এক্সপ্রেস ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক বরণ করবেন।
রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৮ সালের ২৩ জুন যমুনা সেতুর উদ্বোধন হয়। এরপর ২০০৩ সালে প্রথম রেলপথে ঢাকার সঙ্গে খুলনার সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন হয়। ২০০৩ সালের ৮ আগস্ট চালু হয় ‘সুন্দরবন এক্সপ্রেস’ নামে ঢাকা-খুলনা আন্তঃনগর ট্রেন। এরপর ২০০৭ সালের ৭ অক্টোবর চালু হয় ‘চিত্রা এক্সপ্রেস’ ট্রেন। উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলা পেরিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে ঢাকা থেকে ট্রেনটি যেতে ও আসতে সময় নেয় দশ ঘণ্টা।
রেলযাত্রীদের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ শেষ পর্যন্ত নতুন ও অত্যাধুনিক কোচের সুসজ্জিত নতুন পাঁচটি কোচ চিত্রা এক্সপ্রেসের সঙ্গে যুক্ত করায় যাত্রীদের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

আরও পড়ুন