খুলনা মেডিকেল ছাত্র নিখোঁজ

আপডেট: 03:35:54 10/02/2019



img

খুলনা অফিস : খুলনা মেডিকেল কলেজের পঞ্চম বর্ষের ছাত্র আল-মাহমুদ সাকিব নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজ ছাত্রের মামা মো. ইসমাইল হোসেন সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় এই ঘটনায় জিডি করেছেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে কলেজের অধ্যক্ষ জানান, নিখোঁজ ছাত্রকে খুঁজে বের করার জন্য সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানানো হয়েছে।
জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে হোস্টেল থেকে এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে বের হন সাকিব। কিছুক্ষণ পর রুমমেট ছাত্রের কাছে ফোনে ল্যাপটপ, একটি ট্যাব ও তিনটি মোবাইল ফোন জসিম নামে এক ছেলের কাছে দেওয়ার জন্য বলেন। রাত দশটার দিকে জসিম খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে এসে সেগুলো নিয়ে যান। এরপর থেকে খুমেক ছাত্র আল মাহমুদ সাকিব ও জসিম দু’জনেরই নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। সাকিবের আর সন্ধানও পাওয়া যাচ্ছে না।
নিখোঁজ ছাত্রের ভর্তি ফরম থেকে জানা যায়, তার নাম আল মাহমুদ সাকিব। লক্ষ্মীপুর সদর এলাকার উত্তর পঞ্চগড় এলাকার বাসিন্দা আজম হোসেন পাটোয়ারী ও আয়েশা সিদ্দিকার একমাত্র সন্তান তিনি। ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পাওয়া মেধাবী ছাত্র সাকিব ২০১৪ সালের নভেম্বর এমবিবিএস ভর্তি হন খুলনা মেডিকেল কলেজে। ২০১৯ নভেম্বরে এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষা দেওয়ার কথা আল মাহমুদ সাকিবের।
সাকিবের রুমমেট কে-২৫ ব্যাচের ছাত্র সোহান বলেন, ‘বৃহস্পতিবার বিকেলে সাকিব রুম থেকে বের হয়ে যায়। রাত নয়টার দিকে আমাকে মোবাইলে বলে জসিম যাচ্ছে। তার কাছে তিনটি মোবাইল, ল্যাপটপ ও ট্যাব দিয়ে দিতে হবে। আমি তার কথা মতো খুমেক হাসপাতালের সামনে গিয়ে জসিম নামে ওই ব্যক্তিকে জিনিসগুলো দিয়ে আসি। এরপর নয়টা ৫৬ মিনিট থেকে জসিম ও আল মাহমুদ সাকিবের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।’
এ ঘটনায় শনিবার নিখোঁজ ছাত্রের মামা মো. ইসমাইল হোসেন সোনাডাঙ্গা থানায় জিডি করেছেন।
কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আহাদ বলেন, ‘শুনেছি হোস্টেল থেকে একটি ছেলে বাইরে গেছে। এখনো ফিরে আসেনি বা তাকে পাওয়া যাচ্ছে না। প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে বারবার যোগাযোগ হচ্ছে তাকে খুঁজে বের করার জন্য। এছাড়া তার অভিভাবকের পক্ষ থেকে থানায় জিডিও করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন