খোলপেটুয়ার ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার

আপডেট: 07:58:47 12/09/2017



img
img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নে খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধটি অবশেষে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সংস্কার করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত এলাকার দুই হাজার মানুষ একত্রিত হয়ে বাঁধটি মেরামত করেন।
প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন জানান, দীর্ঘদিন খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ জরাজীর্ণ ছিল। পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বারবার বললেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নদীর প্রবল জোয়ারের চাপে বাঁধ ভেঙে যায়। এতে প্রথমে হরিশখালি ও মাদারবাড়িয়াসহ ৪-৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়। এরপর শুক্রবার তালতলা ও প্রতাপনগর নামে আরো দুটি গ্রাম প্লাবিত হয়। গত চার দিন যাবত স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভাঙনকবলিত বেড়িবাঁধ সংস্কার করতে সক্ষম হন।
গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে প্রতাপনগরের হরিশখালি পয়েন্টে খোলপেটুয়া নদীর ২০০ ফুট বেড়িবাঁধ ভেঙে যায়। এর ফলে হরিশখালী, মাদারবাড়িয়া, তালতলা ও প্রতাপনগর গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়। শত শত মাছের ঘের, ঘরবাড়ি প্লাবিত হয়।
গত শুক্রবার সকাল থেকে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভাঙনকবলিত বাঁধ সংস্কারের কাজ শুরু হলেও দুপুরের জোয়ারে তা আবার তলিয়ে যায়। এরপর শনিবার সকাল থেকে সেখানে সহস্রাধিক লোক স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভাঙনকবলিত বেড়িবাঁধ সংস্কারের কাজ করে আজ সফল হন।
মঙ্গলবার উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম, আওয়ামী লীগনেতা স ম সেলিম রেজা, রফিকুল ইসলাম মোল্যা, আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন, আশাশুনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও সুনীলকুমার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান।

আরও পড়ুন