খোলপেটুয়ার বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকছে জনপদে

আপডেট: 08:53:07 23/04/2019



img
img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : গতদুই দিনেও মেরামত করা সম্ভব হয়নি সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলায় খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ। ফলে নতুন করে তিন গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এর ফলে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে গ্রাম পাঁচটি গ্রামের হাজারো মানুষ। ভেসে গেছে শতাধিক মাছের ঘের।
ইতিমধ্যে ভেঙে পড়া শুরু হয়েছে ঘর-বাড়ি। স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে বাঁধ মেরামত কাজ চললেও সেটি পানি আটকানো যাচ্ছে। গবাদিপশু, শিশু ও বৃদ্ধাদের অন্য স্থানে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, বাঁদ ভাঙনের দুইদিন পার হলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড বা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। তবে আশাশুনি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা এলাকা পরিদর্শন করেছেন।
প্রতাপনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বলেন, সোমবার ভোরে উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা গ্রামের পরিমল মণ্ডলের বাড়ি-সংলগ্ন এলাকায় খোলপেটুয়া নদীর প্রায় ১০০ ফুট বেড়িবাঁধ ভেঙে বিলীন হয়ে যায়। এতে প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা ও হিজলা গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। একাকার হয়ে গেছে শতাধিক মাছের ঘের। রাতের জোয়ারে পানি ঢুকলে   পাশের শ্রীউলা ইউনিয়নের কলিমাখালি, মাড়িয়াড়া ও হাজরাখালি গ্রাম প্লাবিত হয়।
এদিকে, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে গদ দুইদিন ধরে বাঁধ মেরামতের চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু জোয়ার শুরু হওয়ায় এই উদ্যোগ সফল হচ্ছে না।
সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফউজ্জামান খান বলেন, বাঁধ মেরামতের জন্য ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে। ২-১ দিনের মধ্যে পানি আটকানো সম্ভব হবে।

আরও পড়ুন