ঘুষের টাকাবঞ্চিত যুবক কেড়ে নিলেন সভাপতির বাইক

আপডেট: 07:10:23 08/09/2017



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরের মাহমুদকাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী নিয়োগে ১২ লাখ টাকা বাণিজ্যের অর্থ ভাগাভাগি নিয়ে ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুল আজিজের মোটরসাইকেল কেড়ে নিয়েছেন ইকবাল হোসেন নামের এক যুবক।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে মাহমুদকাটি গ্রামের জুবায়েরের দোকানের সামনে এই ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়দের হস্তক্ষেপে রাতে মোটরসাইকেল ফিরে পান আব্দুল আজিজ। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় হইচই হচ্ছে।
মাসখানেক আগে হারুনার রশিদ নামের ৩৭ বছর বয়সী এক যুবক ১২ লাখ টাকার বিনিময়ে ভুয়া সনদে চাকরিটি বাগিয়েছেন বলে অভিযোগ। এর পরপরই বিষয়টি নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ জমা পড়ে।
ইকবালের দাবি, হারুনের নিয়োগের জন্য নেওয়া ঘুষ থেকে তাকে ২০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা ছিল। ওই সময় বিভিন্ন কাজে আজিজ বিশ্বাস তাকে ব্যবহার করেছেন। তখন দৌঁড়াদৌঁড়ি করতে গিয়ে তার ৭-৮ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। সেই টাকা না পেয়ে সভাপতির মোটরসাইকেল কেড়ে নেন তিনি । এই নিয়োগে সহযোগিতা করায় ইতিমধ্যে এক যুবককে ফ্রিজ কিনে দেওয়াসহ অনেককেই টাকা দিয়েছেন আজিজ, তথ্য দেন ইকবাল।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইকবাল জুবায়েরের দোকানের সামনে গেলে তাকে দেখে আজিজ বিশ্বাস মোটরসাইকেল স্টার্ট করে সটকে পড়ার চেষ্টা করেন। তখন ইকবাল তার গতিরোধ করে মোটরসাইকেল কেড়ে নিয়ে টেংরামারী বাজারে চলে যান। পরে রাত নয়টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগের লোকজনের মধ্যস্থতায় মোটরসাইকেল ফেরত পান আজিজ বিশ্বাস।
এই মধ্যস্থতায় উপস্থিত ছিলেন এমন একজন ইসমাইল হোসেন। তিনি মাহমুদকাটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক।
তিনি বলেন, 'বৃহস্পতিবার রাতে শুনেছি মাহমুদকাটি প্রাইমারি স্কুলে নৈশপ্রহরী নিয়োগের সময় কয়েক লাখ টাকা বাণিজ্য হয়েছে। ওই সময় ইকবালকে ওদের সাথে ঘোরাঘুরি করতে দেখেছি। পরে শুনেছি, ইকবালকে ২০ হাজার টাকা দিতে চেয়েছিল ওই স্কুলের সভাপতি আজিজ বিশ্বাস। সেই টাকা না দেওয়ায় ইকবাল তার মোটরসাইকেল ধরে আনে।'
ইসমাইল বলেন, 'সবকিছু শুনে আজিজ বিশ্বাসের মোটরসাইকেল দিয়ে দেওয়া হয়েছে। শালিসে বিনোদ রায় নামে আরেক নেতা ছিল। সে ভারতে গেছে। বিনোদ ফিরে এসে এর সমাধান দেবে বলে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে।'
জানতে চাইলে আজিজ বিশ্বাস বলেন, 'ইকবাল কীসের টাকা দাবি করছে তা আমার জানা নেই। তাছাড়া গত দুই বছর ধরে তার সাথে আমার কথা হয় না।'
তাহলে ইকবাল মোটরসাইকেল নিয়ে গেলেন কেন?- এমন প্রশ্নে আজিজ বিশ্বাস বলেন, 'আমি তো তার সাথে মারামারি করতে পারি না!'

আরও পড়ুন