চাকরি চান ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা, অবরোধ

আপডেট: 01:34:03 03/06/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ৩৮টি পদে শিক্ষক ও কর্মকর্তা নিয়োগ বোর্ড রোববার অনুষ্ঠিত হবে। শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা চাকরির নিশ্চয়তা না পেয়ে ফটক অবরোধ করে গাড়ি আটকে দিয়েছেন। শনিবার রাত আটটার দিকে ফটক অবরোধ করেন তারা।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত আটটার দিকে চাকরির দাবিতে ক্যাম্পাসের ফটক অবরোধ শুরু করেন ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মীরা। ফলে রাত আটটার শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী বহনকারী গাড়ি ক্যাম্পাসে আটকা পড়ে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন তারা। পরে তারা লাইন গাড়িতে গন্তব্যে রওনা হন। রাত সাড়ে ১১টার দিকে রোববার সকাল দশটা পর্যন্ত অবরোধ স্থগিত করে নেতাকর্মীরা।
আন্দোলনকারী একাধিক নেতাকর্মীর দাবি, তারা ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতা। ছাত্রলীগের জন্য জীবনে অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে চাকরি প্রদানের কোনো প্রকার আশ্বাস না পাওয়া পর্যন্ত ফটক ছাড়বেন না।
বিগত প্রায় এক দশক ধরে চাকরির জন্য আন্দোলন করে আসছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মীরা।
ইবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয় না। সুতরাং কারো কোনো প্রকার অযৌক্তিক দাবি মেনে নেওয়া হবে না। উপ-উপাচার্য ও ট্রেজারার মহোদয়সহ আমরা বিভিন্ন স্টেক হোল্ডারের সাথে আলোচনা করেছি। আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ প্রশাসন এবং জেলা প্রশাসনের সঙ্গেও কথা বলা হয়েছে। রোববার সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে নিয়োগ বোর্ড সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করছি।’
গত ৭ মে ছাত্রলীগ ও বহিরাগত চাকরিপ্রত্যাশীদের আন্দোলনে চারটি বিভাগ ও একটি অফিসের নিয়োগ বোর্ড স্থগিত করতে বাধ্য হয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পরে চাকরিপ্রত্যাশী ও ছাত্রলীগের সঙ্গে সমঝোতা করে ৪ জুন থেকে আটটি বিভাগ ও তিনটি অফিসের নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড করার সিন্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। স্থগিত করা ফার্মেসি বিভাগের তিনটি প্রভাষক পদে রোববার আবার নিয়োগ বোর্ড অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
সূত্র : এনটিভি

আরও পড়ুন