চুয়াডাঙ্গায় ইউপি চেয়ারম্যান সাসপেন্ড

আপডেট: 07:25:08 27/02/2018



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : দুর্নীতির অভিযোগে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাসকে সাময়িক বরখাস্ত (সাসপেন্ড) করা হয়েছে।
স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী বরখাস্তের এ আদেশে স্বাক্ষর করেছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে বলা হয়েছে, ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে পদ্মবিলা ইউনিয়নে ইজিপিপি, টিআর, কাবিটা, টিআর (বিশেষ) প্রকল্পের প্রায় ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ৪৭৫ টাকা অনিয়ম, দুর্নীতি ও আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া গেছে। সে কারণে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাসের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘যেহেতু ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাসের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় তার দ্বারা ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করে, সেহেতু চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাসের বিরুদ্ধে উত্থাপিত ২০১৬ থেকে ২০১৮ অর্থবছরের টিআর, কাবিটা ও বিশেষ বরাদ্দের প্রকল্প বাস্তবায়ন না করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তদন্ত প্রমাণিত হওয়ায় এবং ওই ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক সংঘটিত অপরাধমুলক কার্যক্রম পরিষদসহ জনস্বার্থের পরিপন্থী’ বিবেচনায় উল্লিখিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে ধারা ৩৪ উপধারা (১) অনুযায়ী তার স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।’
যোগাযোগ করা হলে চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস বলেন, ‘গত রোববার দুপুরের পর আমি ১৮ ফেব্রুয়ারি স্বাক্ষরিত বরখাস্তের চিঠিটি হাতে পাই। এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। যে কাজের ওপর ভিত্তি করে আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে সেই কাজের ১১ জন প্রকল্প কর্মকর্তাকে তদন্তের সময় প্রশাসন ডাকেনি। কিম্বা তদন্ত করার সময়ও বলেনি কাজগুলো কোথায় কোথায় হয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের পরিষদের সদস্যদের মধ্যে গ্রুপিং আছে। এ কারণেই এ ঘটনাটি আরো প্রকট আকার ধারন করেছে। আমি আইনি পদক্ষেপ নেব।’

আরও পড়ুন