চুয়াডাঙ্গায় গুলিতে ‘মাদকের কারবারি’ নিহত

আপডেট: 04:16:42 13/04/2019



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শংকরচন্দ্র ইউনিয়নের উকতো গ্রামের একটি বাঁশবাগানে পুলিশের সঙ্গে কথিত গোলাগুলিতে রুহুল আমিন (৪২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন; যাকে মাদকের কারবারি বলা হচ্ছে।
শুক্রবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে জানিয়ে পুলিশ বলছে, ঘটনাস্থল থেকে এক বস্তা ফেনসিডিল, একটি শাটারগান, দুটি ধারালো অস্ত্র, ১০০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে।
নিহত রুহুল আমিন চুয়াডাঙ্গা শহরের শান্তিপাড়ার মফিজ উদ্দিনের ছেলে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খানের ভাষ্য, মাদকদ্রব্যের বড় একটি চালান আসার খবর ছিল। সেই অনুযায়ী সদর থানা পুলিশের একটি দল শুক্রবার দিনগত রাতে উকতো গ্রামের একটি বাঁশবাগানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারিরা গুলি ও বোমা ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির একপর্যায়ে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে এলাকার লোকজনের সহায়তায় সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহত ব্যক্তিকে শহরের শান্তিপাড়ার মাদক কারবারী রুহুল আমিন বলে এলাকাবাসী শনাক্ত করেন। সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক মশিউর রহমান তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি জানান, হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই রুহুল আমিন মারা যান।
নিহত রুহুলের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় অস্ত্র ও মাদকসহ ১৬টি মামলা রয়েছে। শুক্রবার রাতের ঘটনার ব্যাপারে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলা হবে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন