চুয়াডাঙ্গায় পাঁচ খুনির যাবজ্জীবন

আপডেট: 06:38:11 12/04/2018



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামে মহসিন হত্যা মামলায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক জাকির হোসেন খান আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৬ জানুয়ারি সকাল নয়টায় অভিযুক্ত আসামিরা জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গোবিন্দহুদা গ্রামের দুখু মণ্ডলের ছেলে মহসিনের (৪০) বাড়িতে ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মহসিনের মাথায় কোপ মারে। তিনি মাটিতে পড়ে গেলে হামলাকারীরা তাকে পিটিয়ে ফেলে রেখে যায়। গ্রামের লোকজন মারাত্মক আহত অবস্থায় মহাসিনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তিনি মারা যান।
এই ঘটনায় মহসিনের স্ত্রী নিলুফা বেগম বাদী হয়ে দামুড়হুদা থানায় ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করেন। আসামিরা হলেন, গোবিন্দহুদা গ্রামের নুর বক্স ওরফে ঝড়ু মণ্ডলের ছেলে জয়নুর, পিন্টু, ওয়াজ, ছোট বুড়ো, খাজা, একই গ্রামের মওলা বক্সের ছেলে কুদ্দুস ও রাজ্জাক, কুদ্দুসের ছেলে মাসুম, ওয়াজের ছেলে খোকন, জহিরের ছেলে কালাম, মন্টুর ছেলে রুপম, লুৎফরের ছেলে মোয়াজ্জেম ও মোসলেম এবং মোসলেমের ছেলে লতিফ। তদন্ত শেষে ১৪ জনকে আসামি করে থানার এসআই আমিনুল ইসলাম ২০১৫ সালের ২০ জানুয়ারি আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।
এ মামলায় ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। বিচারক আজ জাকির হোসেন খান, গোবিন্দহুদা গ্রামের নুর বক্স ওরফে ঝড়ু মণ্ডলের ছেলে জয়নুর, ওয়াজ, ছোট বুড়ো, মওলা বক্সের ছেলে কুদ্দুস এবং মোসলেমের ছেলে লতিফকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন।
মামলায় রাষ্ট্র পক্ষের কৌসূলি ছিলেন অ্যাডভোকেট তালিম হোসেন। আসামি পক্ষে লড়েন অ্যাডভোকেট আব্দুল কুদ্দুস।

আরও পড়ুন