চৌগাছায় প্রকল্প হরিলুটের প্রমাণ পেলেন কর্মকর্তা

আপডেট: 08:57:39 15/05/2018



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : চৌগাছায় অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসৃজন প্রকল্পের (৪০ দিনের) এক কোটি নব্বই লাখ ৭২ হাজার টাকার বড় অংশ সরকারি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেওয়ার অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম।
গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর মঙ্গলবার উপজেলার স্বরূপদাহ ও নারায়ণপুর ইউনিয়নের প্রকল্প সাইট পরিদর্শন করেছেন সরকারি এই কর্মকর্তা। পরিদর্শনকালে তিনি অনিয়মের সত্যতা পেয়েছেন বলে সাংবাদিকদের জানান।
অনিয়ম-লুটপাটের প্রথম খবর গণমাধ্যমে প্রকাশের পর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসে অনানুষ্ঠানিক মিটিং হয় পরবর্তী করণীয় নিয়ে। সেই খবরও গণমাধ্যমে চলে আসে। এর পর জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম উপজেলার স্বরূপদা ও নারায়ণপুর ইউনিয়নের প্রকল্প সাইট পরিদর্শনে যান। এসময় তিনি কাজে না আসা শ্রমিকদের হাজিরা বাতিল করে অনুপস্থিত দেখান। এছাড়াও শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে এর আগে প্রকল্প সাইটে যে কয়জন শ্রমিক কাজ করেছেন, সেই অনুযায়ী বিল জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে তিনি ইউপি চেয়ারম্যানদের সতর্ক করেন, এভাবে কাজ না করার কারণে টাকা ফেরত গেলে ভবিষ্যতে ওই সকল ইউনিয়ন পরিষদের অনুকূলে বরাদ্দ কমে যাবে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসকে ২০% টাকা দিতে বাধ্য হওয়া, ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার, মহিলা মেম্বার, সচিব ও চৌকিদার-দফাদারদের নামে একটি করে লেবার রেখে দেওয়ায় উপজেলার বেশিরভাগ প্রকল্প এলাকায় অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসৃজন (৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচি) প্রকল্পের কাজ হচ্ছে না বলে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। এ নিয়ে উপজেলাজুড়ে হইচই পড়ে যায়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম বলেন, ‘আজ (মঙ্গলবার) পরিদর্শন শুরু হয়েছে। স্বরূপদাহ ও নারায়ণপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন প্রকল্প সাইটে গিয়ে অনিয়মের সত্যতা পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার যেখানে যে কয়জন শ্রমিককে অনুপস্থিত পাওয়া গেছে, তাদের অনুপস্থিত দেখানো হয়েছে। এছাড়াও এরআগে যারা কাজ করেনি তাদের অনুকূলে কোনোভাবেই বিল দেওয়া যাবে না বলে নির্দেশনা দিয়েছি। চেয়ারম্যান-মেম্বারদের সতর্ক করা হয়েছে, এভাবে কাজ করলে সরকারি টাকা ফেরত যাবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘এখন থেকে পর্যায়ক্রমে প্রতিটি ইউনিয়নে নিয়মিত পরিদর্শন চলবে।’

আরও পড়ুন