ছোট লঞ্চ না চালানোর নির্দেশ

আপডেট: 07:31:35 20/10/2017



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : নিম্নচাপের প্রভাবে বৈরী আবহাওয়ার কারণে সারা দেশে ছোট আকারের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখতে বলেছে অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল কর্তৃপক্ষ- বিআইডব্লিউটিএ।
এ সংস্থার জনসংযোগ কর্মকর্তা মোবারক হোসেন মজুমদার শুক্রবার বিকেলে বলেন, খারাপ আবহওয়ার কারণে সারা দেশে ৬৫ ফুটের কম দৈর্ঘ্যের সব ধরনের নৌযানের ক্ষেত্রে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
“আর উপকূলীয় এলাকা হাতিয়া, বেতুয়া ও রাঙ্গাবালিতে সব ধরনের লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে।”
ঢাকা সদরঘাটে বিআইডব্লিউটিএর পরিবহন পরিদর্শক সৈয়দ মাহফুজুর রহমান জানান, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ফারহার-৪ নামের একটি লঞ্চ হাতিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সমুদ্রবন্দরগুলোতে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত থাকায় কর্তৃপক্ষ ওই রুটের সব লঞ্চের যাত্রা বাতিল করেছে।
পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত  উপকূলীয় এলাকায় কোনো ধরনের লঞ্চ চলবে না বলে জানান তিনি।
মাহফুজ বলেন, নৌ বন্দরে দুই নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত থাকলে ৬৫ ফুটের কম দৈর্ঘ্যের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখার নিয়ম। সে কারণেই সারা দেশে ছোট লঞ্চ না চালাতে বলা হয়েছে।  
এদিকে পদ্মা উত্তাল হয়ে ওঠায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি রুটেও সব ধরনের নৌযান পারাপার বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। ফলে দুই ঘাটে কয়েকশ গাড়ি আটকা পড়েছে।
বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শাহ নেওয়াজ খালেদ বলেন, নিম্নচাপের প্রভাবে শুক্রবার সকাল থেকে পদ্মা উত্তাল হতে শুরু করে। বেলা পৌনে ১২টার দিকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুট দিয়ে লঞ্চ, স্পিডবোট ও ডাম্প ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।
“বিকেল পর্যন্ত ফেরি দিয়ে কোনো রকমে পারাপার সচল রাখা হয়েছিল, কিন্তু বাতাসের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় বিকাল ৪টার দিকে সেটাও বন্ধ করে দেওয়া হয়।”
এর ফলে পদ্মার মুন্সীগঞ্জ প্রান্তে শিমুলিয়া এবং মাদারীপুর প্রান্তে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে পাঁচ শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে বলে জানান খালেদ।
মাওয়া নৌফাঁড়ির ইনচার্জ সরজিৎকুমার ঘোষ বলেন, “ঘাটে যাত্রী নিরাপত্তায় পুলিশ কাজ করছে। কোনো রকম বিশৃঙ্খলা যাতে না হয় সে ব্যাপরে পুলিশ সর্তক অবস্থানে রয়েছে।”
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপটি স্থলভাগে উঠে আসায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃহস্পতিবার থেকেই বৃষ্টি চলছে, যা শনিবার সকাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে। 
বিরূপ আবহাওয়ায় সাগর উত্তাল থাকায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোর জন্য তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত বহাল রাখা হয়েছে আবহাওয়ার সর্বশেষ বুলেটিনে।
উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।
সূত্র : বিডিনিউজ