ছয় মাসে ভোমরা বন্দরে রাজস্ব ঘাটতি ৩৮ কোটি

আপডেট: 05:38:57 05/01/2018



img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে চলতি অর্থবছরের (২০১৭-১৮) প্রথম ছয় মাসে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩৭ কোটি ৮৫ লাখ টাকা রাজস্ব কম আয় হয়েছে।
৪১৮ কোটি আট লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে এ বন্দরে রাজস্ব আয় হয়েছে ৩৮০ কোটি ২৩ লাখ টাকা। এমন পরিস্থিতিতে অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন কিছুটা কঠিন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
ভোমরা শুল্ক স্টেশন সূত্র জানায়, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জুলাই মাসে ৪৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকা রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৪৯ কোটি দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা, আগস্টে ৩৮ কোটি টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৬১ কোটি, সেপ্টেম্বরে ৩৯ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বিপরীতে ৪৩ কোটি ৪০ লাখ, অক্টোবরে ৮৪ কোটি ৫৪ লাখ টাকার বিপরীতে ৫৭ কোটি ৯৭ লাখ, নভেম্বরে ৯৮ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বিপরীতে ৮৩ কোটি ৪৫ লাখ এবং ডিসেম্বরে ১১০ কোটি এক লাখ টাকার বিপরীতে ৮২ কোটি ৮২ লাখ টাকা রাজস্ব অর্জিত হয়েছে।
অর্থাৎ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে ৪১৮ কোটি আট লাখ টাকা লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে রাজস্ব আয় হয়েছে ৩৮০ কোটি ২৩ লাখ টাকা। ঘাটতি রয়েছে ৩৭ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।
জানতে চাইলে ভোমরা স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, ‘ভোমরা বন্দর দিয়ে সব ধরনের পণ্য আমদানির সুযোগ দেওয়া হলে এ বন্দর থেকে লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি রাজস্ব আয় করা সম্ভব। গুটিকয়েক পণ্য আমদানির সুযোগ থাকায় রাজস্ব আয়ের সুযোগ কম।’
তবে প্রথম ছয় মাসে ঘাটতি থাকলেও এনবিআর রাজস্ব আয়ের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে তা যথা সময়ে অর্জন করা সম্ভব বলে মনে করেন ভোমরা শুল্ক স্টেশনের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা বিকাশ বড়ুয়া।
প্রসঙ্গত, ভোমরা স্থলবন্দরে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৩০ কোটি ৯৮ লাখ ৬৬ হাজার টাকা। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে এই লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়ে নির্ধারণ করা হয় ৮৮১ কোটি ৮০ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন