জমিজমার জন্যে ছোটভাইকে খুন

আপডেট: 09:14:39 23/05/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের কেশবপুরে তরিকুল ইসলাম (১৫) হত্যার কারণ উদ্ঘাটন এবং হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা নিহতের বড়ভাই শরিফুল ইসলামকে (২২) আটক করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন  -পিবিআই। 
আসামি শরিফুল আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুদ্দীন হুসাইনের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন।
পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএইচ জাহাঙ্গীর হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইনসপেক্টর মো. আব্দুল মান্নান বুধবার ২২ মে দুপুরে কেশবপুর উপজেলার  সাতবাড়িয়া পাচানিপাড়া থেকে শরিফুলকে আটক করেন।
মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা ইনসপেক্টর মো. আব্দুল মান্নান বলেন, ২০১৮ সালের ৪ অক্টোবর গভীর রাতে কেশবপুর উপজেলার সাতবাড়িয়া পাচানিপাড়ার এরশাদ সানার বাগানবাড়িতে খুন হন তরিকুল ইসলাম।
এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় একটি মামলা হয়।  মামলাটি প্রথমে তদন্ত করেন কেশবপুর থানার এসআই কামরুজ্জামান।  পরে তদন্তভার দেওয়া হয় ডিবি পুলিশের এসআই আবুল খায়েরকে।  সর্বশেষ মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় পিবিআইকে ।
চলতি বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় মো. আব্দুল মান্নানকে। 
তিনি বলেন, গত তিনমাস ধরে মামলাটি গভীরভাবে পর্যালোচনা করে জানতে পারি, নিহতের তরিকুলের আপন বড়ভাই এবং তার ভাবি জায়গা জমির জন্য তাকে খুন করেন।  আর এই কাজে শরিফুলের স্ত্রী জেসমিন বেগম (১৯) ও শ্যালক রবিউল এবং ফুফাতো শ্যালক আল-আমিন সহায়তা করেন। 
তিনি জানান, ২০১৮ সালের ৩ অক্টোবর দিবাগত রাতে কোনও একসময় তরিকুল বাইরে বের হলে তাকে এরশাদ সানার বাগানভিটার উপরে গলা ও হাত কেটে হত্যা করা হয়।  পরদিন সকালে শরিফুল স্যালোমেশিন দিয়ে পানি দিয়ে গিয়ে তরিকুলের লাশ দেখে চিৎকার করে স্থানীয়দের জানান দেন। 
হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের বাবা মো. নজরুল ইসলাম বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।   মামলা নম্বর-০২/০৪.১০.১৮। 

আরও পড়ুন