জেএফসির ফ্রিজে কাঁচা মাছ মাংসের সঙ্গে রান্না করা খাবার

আপডেট: 08:38:34 05/03/2018



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরে শহরের দড়াটানায় অবস্থিত অভিজাত ‘জেএফসি ফাস্ট ফুড’সহ তিনটি প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাজিব হাসান, প্রীতম সাহা এবং কেএম আবু নওশাদ সোমবার বিকেলে এই জরিমানা করেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের পেশকার মো. জালাল উদ্দিন সুবর্ণভূমিকে জানান, অভিযানকালে জেএফসি ফাস্ট ফুডে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ দেখা যায়। ফ্রিজে কাঁচা মাছ-মাংস ও রান্না করা খাবার এক সঙ্গে রাখা হয়েছে। পণ্যের মোড়কে উল্লেখ করা নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দাম নেওয়া হচ্ছে। এই অপরাধে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাজিব হাসান প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার আশরাফুল ইসলাম রনিকে ২০০৯ সালের জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৪৩ ধারায় দশ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
এর আগে ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরের চাঁচড়া বাজারে বিশ্বাস ফুড প্রোডাক্টে দেখতে পান নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। প্রতিষ্ঠানটির পরিবেশের ছাড়পত্র নেই। এই অপরাধে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রীতম সাহা প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার জাহিদুর রহমানকে ২০০৯ সালের জাতীয় ভোক্তা অধিকার আইনের ৩৭ ধারায় দশ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
এদিকে, বেলা ১২টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত শহরতলীর বাহাদুরপুরে একটি করাতকলে অভিযান চালান। ওই করাতকলের লাইসেন্স নেই। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেএম আবু নওশাদ এই অপরাধে করাতকলটির মালিক শাহাবুদ্দিন টগরকে ২০১২ সালের করাতকল বিধিমালা আইনের ৪ ধারায় পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
আদালত চলাকালে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর যশোরের সহকারী পরিচালক মো. সোহেল শেখ ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।