জেদ্দায় নিহত মনিরুল-হোসেনের লোহাগড়ার বাড়িতে মাতম

আপডেট: 02:21:42 06/07/2018



img
img

রূপক মুখার্জি, লোহাগড়া (নড়াইল) : গত বুধবার ভোরে সৌদি আরবের জেদ্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুইজনের বাড়ি নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলায়। তারা হলেন, মনিরুল মোল্যা (২৮) ও সৈয়দ হোসেন আলী (৩২)। তাদের দুই পরিবারেই চলছে মাতম। আত্মীয়-স্বজন এবং পাড়া-প্রতিবেশীদের আহাজারিতে এলাকার বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে। চলছে কান্নার রোল। অনেকে শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দিচ্ছেন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের মৃত মহসিন মোল্যার ছেলে মনিরুলের বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, সাত ভাই-বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। জেলার সদর উপজেলার শাহাবাদ মাদরাসা থেকে কামিল পাশ করে বড় ভগ্নিপতি চর মল্লিকপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী মঞ্জুর শেখের মাধ্যমে এক বছর আগে সৌদি আরবে যান।
নিহত মনিরুলের মা আমেনা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘আমার ছেলে এবার দেশে ফিরে এসে বিয়ে করবে বলে আমাদের মেয়ে দেখতে এবং বাড়িঘর মেরামত করতে বলেছিল। কিন্তু তার সে স্বপ্ন আর পূরণ হলো না।’
এ সময় মনিরুলের বোন জেসমিন ও নাইস বেগম বিলাপ করতে করতে বলেন, ‘টাকা দিয়ে কী হবে? আমার ভাই বিদেশে গিয়েছিল অনেক টাকা আয় করতে। কিন্তু সে এখন লাশ হয়ে ফিরছে।’
সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত উপজেলার লাহুড়িয়া গ্রামের সৈয়দপাড়ার সৈয়দ আশরাফ আলীর ছেলে সৈয়দ হোসেন আলীর বাড়িতেও চলছে কান্নার রোল। নিহতের স্ত্রী রাকিয়া বেগম তার দুই শিশু ছেলে ফাহাদ ও হামজাকে জড়িয়ে ধরে বিলাপ করে বলছে, ‘তোর বাবা আর কোনো দিন আমাদের মাঝে ফিরে আসবে না। তোদের পৃথিবীতে বাবা বলে ডাকার আর কেউ থাকলো না।’
নিহতের বড় ভাই সৈয়দ নাসির আলী জানান, হোসেন প্রথমে পাঁচ বছর কুয়েতে ছিলেন। দেশে ফিরে ৮-৯ মাস আগে সৌদি আরবে চলে যান। তার মৃত্যুর খবরে বৃদ্ধ পিতা-মাতা বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন।
এ দিকে, দুই পরিবারের সদস্যরা নিহত মনিরুল ও হোসেনের লাশ দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন।
সৌদি আরবের জেদ্দায় গত বুধবার ভোরে কিং আব্দুল আজিজ সড়কের সামারি কোর্ট ও রেড সি মলের মধ্যবর্তী এলাকায় মাইক্রোবাস উল্টে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এতে নড়াইল সদরের রামচন্দ্রপুর গ্রামের ইশারত শেখের ছেলে ইস্ররাফিল শেখ, লোহাগড়ার লাহুড়িয়ার সৈয়দপাড়ার হোসেন আলী ও আড়পাড়া গ্রামের মনিরুল মোল্যা নিহত হন। দুর্ঘটনায় উপজেলার কুমড়ি গ্রামের আফসার ফকিরের ছেলে মাসুদ ফকির গুরুতর আহত হয়ে জেদ্দার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আরও পড়ুন