ঝিকরগাছার সন্ত্রাসী রাজু হত্যায় মণিরামপুরে মামলা

আপডেট: 09:13:03 08/01/2018



img

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের ঝিকরগাছার শীর্ষ সন্ত্রাসী রাজু হত্যার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে মণিরামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেছে।
মণিরামপুর থানার এসআই শরিফ এনামুল বাদী হয়ে রোববার রাতে এ মামলাটি করেন। তবে এঘটনায় কেউ আটক হয়নি।
মামলার আসামিরা হলেন, ঝিকরগাছা পৌরশহরের কৃষ্ণনগর এলাকার ইসলামের ছেলে মানিক, আলাউদ্দিনের ছেলে শুভ, নাজিম উদ্দিনের ছেলে শিপন ওরফে মিজান মাহমুদ, আসলাম মাস্টারের ছেলে টোকন, মৃত মিজানুর রহমানের ছেলে রিংকু, মোবারকপুর গ্রামের মৃত কাঞ্চনের ছেলে বাবু ওরফে বালি বাবু, কীর্তিপুর গ্রামের আমীর আলীর ছেলে আরজু ড্রাইভার, চাঁপাতলা গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে সাবিবুর রহমান, মালোর ছেলে শরিফুল ইসলাম, মণিরামপুর উপজেলার পটি গ্রামের হজন আহম্মদের ছেলে আলমগীর হোসেন, ইত্যা গ্রামের মুজিবুর রহমানের ছেলে নাসির উদ্দিন এবং মৃত রকিব উদ্দিনের ছেলে সাজাহান। এ ছাড়া আরো পাঁচজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এসআই জহির রায়হান মামলার বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।
প্রসঙ্গত, রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মণিরামপুর উপজেলার স্মরণপুর জয়েন্ট ইটভাটার পাশে সর্ষেক্ষেতে রাজুর লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে ওসি মোকাররম হোসেনসহ পুলিশের একটি টিম গিয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।
রাজু ঝিকরগাছার শীর্ষ সন্ত্রাসী ছিল। তার বিরুদ্ধে ঝিকরগাছার ছাত্রলীগ কর্মী মিলন হত্যাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২৩টি মামলা রয়েছে। রাজু কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত ঝিকরগাছার সন্ত্রাসী পালসার বাবুর সহযোগী ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন