ঝিকরগাছায় মোস্তফা ফারুকের জানাজা

আপডেট: 07:23:05 06/01/2017



img

স্টাফ রিপোর্টার : সাবেক সংসদ সদস্য, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী, রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদের (৭৪) জানাজা শুক্রবার বাদ জুমা যশোরের ঝিকরগাছায় সম্পন্ন হয়েছে।
বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হেলিকপ্টারযোগে মরহুমের কফিন ঝিকরগাছার এমএল পাইলট হাইস্কুলের মাঠে আনা হয়। এরপর মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে করে বিএম হাইস্কুল মাঠে আনা হয়। এ সময় কফিনের সঙ্গে ছিলেন নিহতের ছোটভাই ডা. মোস্তফা শরীফ মোহাম্মদ।
জুমার নামাজ শেষে বেলা দুইটার দিকে এই মাঠেই তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
জানাজায় উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, সংসদ সদস্য (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিলউদ্দিন (শার্শা), জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার, ঝিকরগাছা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার পাশা জামাল, ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুসা মাহমুদ, চৌগাছা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম হাবিবুর রহমান, ঝিকরগাছা জাসদের সভাপতি রশিদুর রহমান রশিদসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।
জানাজা পড়ান ঝিকরগাছা কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজুল ইসলাম।
জানাজা শেষে দলীয় পতাকায় আবৃত মরহুমের কফিনে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করেন দলের বিভিন্ন ইউনিটসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
বেলা আড়াইটার দিকে ফের হেলিকপ্টারে করে মরহুমের কফিন ঢাকার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়।
মরহুমের ছোটভাই ঢাকা হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোস্তফা শরীফ মোহাম্মদ জানান, তাকে মিরপুর বুদ্ধিজীবী গোরস্থানে দাফন করা হবে।
প্রসঙ্গত, মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ ৪ জানুয়ারি রাতে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।
মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই কন্যাসন্তান, অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
সাবেক রাষ্ট্রদূত ও সাবেক মন্ত্রী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ ১৯৪২ সালের ২১ মার্চ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা শহরের কৃষ্ণনগরে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মরহুম সেকেন্দার মোহাম্মদ মোসলেম। মা আমেনা খাতুন।
মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ বাবা-মার আট সন্তানের মধ্যে তৃতীয় এবং ভাইদের মধ্যে দ্বিতীয়। বড়ভাই মোস্তফা আনোয়ার মোহাম্মদ সরকারের যুগ্মসচিব ছিলেন।
মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ ১৯৬৮ সালে কুষ্টিয়ার মেয়ে মমতাজ হাবিবের সঙ্গে বৈবাহিক সূত্রে আবদ্ধ হন। মমতাজ হাবিবও একজন সুশিক্ষিত নারী এবং সমাজসেবী। বড়মেয়ের নাম হৃদি এবং ছোটমেয়ে দিশা।

আরও পড়ুন