টিএস আইয়ুবসহ বিএনপি নেতাদের নামে মামলা

আপডেট: 05:14:24 01/12/2017



img

বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধি : বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুবসহ দলটির ৫২ নেতা-কর্মীর নামোল্লেখ করে একটি মামলা করেছে বাঘারপাড়া থানা পুলিশ। নাশকতা, অন্তর্ঘাত ও ক্ষতিকর কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগ এনে বিশেষ ক্ষমতা আইনে এ মামলাটি রুজু করা হয়।
বাঘারপাড়া থানার এসআই শাহ্ আলম বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় আরো ২০-৩০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি টিএস আইয়ুব কথিত ঘটনার সময়সহ বেশ কয়েকদিন রাজধানীতে অবস্থান করছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বৃহস্পতিবার সকালে বাঘারপাড়া চৌরাস্তা-সংলগ্ন উপজেলার এক নম্বর গেটে টিএস আইয়ুবের নেতৃত্বে বিএনপির কিছু নেতাকর্মী লাঠিসোটা ও দেশি অস্ত্র নিয়ে নাশকতা ও অন্তর্ঘাতমূলক কর্মকাণ্ড করার জন্য মহড়া দিয়ে লোকজনের ভেতর আতংক সৃষ্টি করছিল। একই সময় কয়েকটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গেলে আসামিরা পালিয়ে যায়।’
এজাহারে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘আসামিরা নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করার জন্য ষড়যন্ত্র, নাশকতা, অন্তর্ঘাতমূলক ও ক্ষতিকর কর্মকাণ্ড সৃষ্টি করে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা করছিল।’
তবে মামলার বাদী এসআই শাহ্ আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি একটি শালিসে আছেন জানিয়ে পরে যোগাযোগ করতে বলেন।
মামলার প্রধান আসামি ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুব বলেন, ‘বিএনপির নেতা-কর্মীরা যাতে সংগঠিত হতে না পারে সে জন্য এ মিথ্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে পুলিশের এ মামলা দূরভিসন্ধিমূলক। এটা বর্তমান সরকারের চিরাচরিত স্বভাব।’
তিনি বলেন, ‘পুলিশ এজাহারে ঘটনার যে সময় উল্লেখ করেছে, তখন আমি ঢাকায় ছিলাম। ওই ধরনের কোনো ঘটনা বাঘারপাড়ায় ঘটেনি। পুরোটাই পুলিশের কষ্টকল্পনা।’
বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুরুল আলম মামলার দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামিদের আটকে অভিযান চালানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এর আগের দিন যশোর ও চৌগাছায় বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের নামে অনুরূপ মামলা করে পুলিশ। চৌগাছার মামলায় উপজেলা বিএনপি সেক্রেটারিকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। যশোরের মামলায় নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, নগর ছাত্রদল সভাপতিসহ নেতাকর্মীদের আসামি করা হয়েছে। মামলায় যে ধরনের অভিযোগ আনা হচ্ছে, বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা বলছেন, তেমন কোনো ঘটনা সম্প্রতি এসব এলাকায় ঘটেনি।

আরও পড়ুন