ঢাকা-বেনাপোল সরাসরি ট্রেন চালু

আপডেট: 04:08:24 17/07/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা-বেনাপোল রুটে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই রুটে ট্রেন চলাচল উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বুধবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে উদ্বোধনের পর সোয়া একটায় ট্রেনটি বেনাপোল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। এর পাইলট ছিলেন বেনজির আহম্মদ।
রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান পরিবহন তত্ত্বাবধায়ক মোহাম্মদ শাহ নেওয়াজসহ আওয়ামী লীগ নেতা ও সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন এ সময় বেনাপোল রেলস্টেশনে ছিলেন।
রেল কর্মকর্তা শাহ নেওয়াজসহ বলেন, ৮৯৬ আসনের এই ট্রেনটি প্রতিদিন বেলা একটায় বেনাপোল স্টেশন থেকে ছেড়ে যশোর, ঈশ্বরদী ও ঢাকা বিমানবন্দরে যাত্রী ওঠানো-নামানোর জন্য সাময়িক বিরতি দিয়ে শেষ গন্তব্যস্থল কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে থামবে রাত নয়টায়। আবার রাত ১২টা ৪০ মিনিটে কমলাপুর থেকে ছেড়ে সকাল আটটা ৪৫ মিনিটে বেনাপোল পৌঁছাবে।
ট্রেনের শোভন চেয়ারের ভাড়া ৫৩৪ টাকা, তাপানুকূল চেয়ার এক হাজার ১৩ টাকা, তাপানুকূল প্রথম শ্রেণি এক হাজার ২১৩ টাকা এবং তাপানুকূল বার্থ টিকেটের দাম এক হাজার ৮৬৯ টাকা ধরা হয়েছে।
শাহ নেওয়াজ বলেন, 'বেনাপোল এক্সপ্রেস' নামে এ ট্রেনে রয়েছে বিমানের মতো পরিবেশবান্ধব বায়ো-টয়লেটসহ অত্যাধুনিক সব সুবিধা। এতে ঢাকা থেকে বেনাপোল যেতে সময় লাগবে আট ঘণ্টা। এ ট্রেনে রয়েছে নতুন ১২টি কোচ। তার মধ্যে দুটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। প্রচলিত সুইং দরজার বদলে এসব কোচে রয়েছে নিরাপদ স্লাইডিং দরজা। প্রতিবন্ধী যাত্রীদের জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা রয়েছে, যা দেশে এই প্রথম।
বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ ট্রেনের ১০৪টি টিকিট বিক্রি হয় বলে জানিয়েছেন বেনাপোল রেলস্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান।
ট্রেনযাত্রী বেনাপোল পৌর কাউন্সিলার মিজানুর রহমান বলেন, 'এটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। বাসের চেয়ে ট্রেনে যাতায়াত নিরাপদ ও আরামদায়ক। ট্রেনে যাতায়াত করতে সবাই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। এই ট্রেনের যাত্রী হতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে হচ্ছে।'
বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট হাফিজুর রহমান বলেন, 'ইতিহাসের সাক্ষী হতে এই ট্রেনের যাত্রী হয়েছি।'
ট্রেন উদ্বোধনের সময় বেনাপোল রেলস্টেশনে ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন, ঝিকরগাছার সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) ডা. নাসির উদ্দিন, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক শামসুজ্জামান, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোফাজ্জেল হোসেন, শার্শা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জুসহ আওয়ামী লীগ নেতা ও সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন।

আরও পড়ুন