তীব্র আক্রমণের পর আচমকা আলিঙ্গন

আপডেট: 09:39:45 20/07/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ভারতে সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর বিতর্কের পরই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী চমকে দিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে।
কড়া ভাষায় বিজেপির সমালোচনা করে ভাষণের পরই রাহুল আচমকা আলিঙ্গন করেন মোদীকে। আর এতে হকচকিয়ে যান প্রধানমন্ত্রীও।
লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় ঝড় তুলেছিলেন রাহুল। বিরোধীরাও হইচই করে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছিল।
এরপর আচমকাই ছন্দপতন ঘটিয়ে রাহুল আসন ছেড়ে নেমে এসে হেঁটে মোদীর কাছে যান। গিয়েই তাকে উঠে দাঁড়াতে বললে মোদী কিছু বুঝে উঠতে পারছিলেন না। শেষ পর্যন্ত নিজেই ঝুঁকে মোদীকে জড়িয়ে ধরেন রাহুল।
৪০ মিনিটের ভাষণ শেষে রাহুল ভারতীয় সংস্কৃতি ও রাজনৈতিক পরম্পরার কথা তুলে ধরে বলেন, “সবাই যত হিংসা, বিদ্বেষ করুক ভালোবাসাই ভারতীয় সংস্কৃতি। আপনাদের প্রতি আমার কোনো ঘৃণা নেই।”
‘‘আপনারা আমাকে হিংসা করতে পারেন, আমাকে ঘৃণা করতে পারেন। আমাকে পাপ্পু বলতে পারেন। কিন্তু আপনাদের প্রতি আমার কোনো রাগ কিংবা ঘৃণা নেই। আমি আপনাদের সবাইকে ভালোবাসি, শ্রদ্ধা করি। কারণ, আমি হচ্ছি কংগ্রেস।”
এর আগে ভাষণের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীকে লক্ষ্য করে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল বলেছিলেন, “তিনি আমার চোখের দিকে তাকাতে পারছেন না। তিনি নার্ভাস।” মোদী তখন হেসে উঠে সোজা রাহুলের চোখের দিকে তাকান।
ভাষণে একের পর এক ইস্যুতে মোদীকে কড়া কথা শুনিয়েছেন রাহুল। তিনি মোদীর বিরুদ্ধে জাতিকে মিথ্যা কথা বলার অভিযোগ করেন। রাফায়েল যুদ্ধবিমান চুক্তি নিয়ে সরকার লুকোচুরি খেলছে কেনো- তা নিয়ে প্রশ্ন করেন।
তাছাড়াও, রাহুল জিএসটি, নোট বাতিল, ডোকালাম ইস্যু নিয়ে শাসক দলকে প্রশ্নবিদ্ধ করেন। নারীদের দেশে নিরাপদ বোধ না করার বিষয়টিতে মোদীর নীরবতা কেনো তা নিয়ে এবং দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষেরা হত্যার শিকার হওয়ার বিষয়টি নিয়েও রাহুল প্রশ্ন করেন।
রাহুলের এদিনের বক্তৃতায় সোনিয়া গান্ধীসহ অনেকেই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
সূত্র : বিডিনিউজ

আরও পড়ুন