নারী ডাক্তার লাঞ্ছনা, কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

আপডেট: 01:43:28 01/03/2018



img
img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ঢুকে কর্মরত নারী চিকিৎসককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও চিকিৎসকদের কক্ষ ভাংচুরের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা শাহজামান বিন শহীদ ওরফে অন্তরকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।
দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে বুধবার রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি এ বহিষ্কারাদেশ দেয় বলে জানিয়েছেন কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ আহমেদ।
এদিকে লাঞ্ছনা ও ভাঙচুরের ঘটনার প্রতিবাদে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা কর্মবিরতি পালন করছেন। এই মেডিকেল কলেজ নির্মাণাধীন থাকায় এর শিক্ষার্থীরা জেনারেল হাসপাতালে ইন্টার্ন করেন। গতকাল বিকেল থেকে তারা কর্মবিরতি পালন করছেন।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি নূরুন্নবী হোসেন জানান, বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে সকাল দশটায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকদের সঙ্গে বৈঠক হয়। বৈঠকে হাসপাতালে দায়িত্ব পালনের সময় নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ বেশ কয়েকটি দাবি তুলে ধরা হয়। দাবি না মানলে কর্মবিরতি অব্যাহত থাকবে।
গতকাল এক রোগীর মৃত্যুর পর তার স্বজনরা অভিযোগ করেন, তারা অক্সিজেন চেয়েও পাননি। এ জন্য তাদের রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ অভিযোগে রোগীর স্বজনেরা হাসপাতালের চিকিৎসকদের ওপর চড়াও হন। হাসপাতালের নিচতলায় ইন্টার্ন চিকিৎসক ইশরাত হুমায়রাকে গালিগালাজ ও আপত্তিকর কথা বলেন ছাত্রলীগ নেতা অন্তর ও তার সহযোগীরা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তার হাত মুচড়ে ধরেন এবং পরে কক্ষের জানালা ভাঙচুর করেন ওই দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য রাশেদুল ইসলাম ছুটে এলেও তার ওপরও চড়াও হন এক যুবক। এমনকি তার চাকরি খেয়ে নেওয়ারও হুমকি দেওয়া হয়।
সূত্র : প্রথম আলো