নেতাদের দ্বন্দ্বে আবার ফেরত গেল দশ টাকার চাল

আপডেট: 06:40:33 01/12/2016



img

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছায় হরিঢালী ইউনিয়নে এমপি ও ইউপি চেয়ারম্যানের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে দশ টাকার চাল থেকে আবারো বঞ্চিত হলো এক হাজার ৩২৫টি হতদরিদ্র পরিবার। চালবঞ্চিত হওয়ায় এসব পরিবারের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত সেপ্টেম্বর মাসে উপজেলার দশটি ইউনিয়নের তালিকা জমা দেওয়ার কথা থাকলেও ত্রুটিপূর্ণ নাম জমা পড়ায় কয়েকবার তা ফেরত দেওয়া হয়। তালিকা তৈরিতে অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খাদ্য কমিটির সভাপতি নাহিদ-উল-মোস্তাক ইউপি চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে অঙ্গীকারনামা গ্রহণ করেন। এমনকী কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাৎক্ষণিকভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন। এ কারণে অনেক ইউনিয়নের তালিকা জমাদানে বিলম্ব হয়। যে কারণে আটটি ইউনিয়নে দুই মাসের চাল ফেরত যায়। সবশেষ তালিকায় এমপির দেওয়া ৩২৩টি নামের জায়গায় ১৫০টি নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কিন্তু এতে সমস্যা সমাধান তো হয়ইনি, উল্টো দ্বন্দ্ব বেড়েছে হরিঢালী ইউনিয়নে। যে কারণে ওই ইউনিয়ন থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ তালিকা জমা পড়েনি। সম্প্রতি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি ত্র“টিপূর্ণ তালিকা জমা পড়েছে বলে খাদ্য পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম জানান।
হরিঢালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু জাফর সিদ্দিকী রাজু বলেন, ‘স্থানীয় সংসদ সদস্যের দেওয়া নামগুলো তালিকাভুক্ত না করার কারণে আমার দেওয়া তালিকা বার বার ফেরত আসছে। ইউপি সদস্যদের দিয়ে তালিকা প্রস্তুত করে জমা দিলেও তা ফেরত দেওয়ায় আমার ইউনিয়নের হতদরিদ্ররা প্রাপ্য চাল থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’
তালিকা জমা না দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ-উল-মোস্তাক জানান, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন