প্রথম হাটেও খাঁ খাঁ রাজারহাট চামড়ার মোকাম

আপডেট: 01:35:44 06/09/2017



img
img
img

স্টাফ রিপোর্টার : কুরবানি ঈদ-পরবর্তী প্রথম হাটে জমজমাট থাকে দেশের অন্যতম প্রধান চামড়াহাট যশোরের রাজারহাট। কিন্তু এবছর অবস্থা সম্পূর্ণ বিপরীত। মোটেই জমেনি হাট। ক্রেতা-বিক্রেতার হাকডাকে মুখরিত হয়নি এলাকা।
কারবারিদের মতে, লোকসানের আশঙ্কায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা হাটে চামড়া না নিয়ে আসায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ট্যানারি কর্তৃক মাঠপর্যায় থেকে উচ্চমূল্যে চামড়া সংগ্রহ, পাওনা টাকা না পাওয়া ও লবণের অতিরিক্ত দামও প্রভাব ফেলেছে হাটে। তবে, ব্যবসায়ী সমিতির নেতাদের আশা, আগামী শনিবারের হাটে চামড়ার দেখা মিলবে।
রাজারহাটের চামড়াহাট যশোর-খুলনা মহাসড়কের পাশে সপ্তাহে দুইদিন শনি ও মঙ্গলবার বসে। এ হাটে যশোর ছাড়াও খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, ঢাকা, রাজশাহী,  পাবনা, ঈশ্বরদী, নাটোরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার বড় বড় ব্যবসায়ীরা চামড়া বেচাকেনা করেন। এবারের ঈদ হয় শনিবার। ফলে আজ মঙ্গলবার ছিল ঈদ-পরবর্তী প্রথম হাট।
প্রথম হাট যেমন জমজমাট থাকে অন্য বছর, এবারের চিত্র তার পুরোটাই উল্টো। প্রত্যাশার এক-তৃতীয়াংশ চামড়াও ওঠেনি হাটে। আর যারা চামড়া এনেছিলেন তাদের চামড়া প্রতি ২০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত লোকসান গুণতে হয়েছে।
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আবুল কালাম বলেন, 'ট্যানারি মালিকরা এবার চামড়ার দাম নির্ধারণ করেছে প্রতি বর্গফুট (গরু) ৪০ থেকে ৪৫ টাকা এবং ছাগলের চামড়া ৭০ থেকে ৭৫ টাকা প্রতি পিস। তবে, আজ বিক্রি হয়েছে, গরুর চামড়া প্রতি বর্গফুট ৬৫ থেকে ৭০ টাকা দরে। এতে হাটে নিয়ে আসা বিক্রেতারা মোটামুটি খুশি।'
মঙ্গলবারের হাটে হাজার দশেক গরুর চামড়া উঠেছে বলে তিনি দাবি করেন।
বৃহত্তর যশোর জেলা চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন মুকুল বলেন, 'ঈদের পরের হাটে গরু ও ছাগল মিলিয়ে ৫-৬ লাখ পিস চামড়া ওঠে রাজারহাটে। কিন্তু আজ প্রথম হাট হলেও চামড়া খুব একটা ওঠেনি।'
তিনি জানান, মূলত ট্যানারি মালিকদের বেঁধে দেওয়া মূল্য, লবণের দাম বেশি এবং বন্যার কারণে এবার কুরবানির সংখ্যা কম। তাছাড়া চামড়া ক্রেতাদের কাছে যে পরিমাণ নগদ অর্থ থাকা দরকার, তা না থাকার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
মুকুল জানান, ট্যানারি মালিকদের কয়েকজন এতিমখানাসহ অন্যত্র অগ্রিম টাকা দিয়ে প্রায় ২৫ হাজার চামড়া আগেই কিনে নিয়ে গেছে।
তবে তিনি আশাবাদী, আগামী শনিবারের হাটে দেশের সব জায়গার ক্রেতা ও ট্যানারি মালিকদের প্রতিনিধিরা আসবেন। সেদিনই জমজমাট হবে চামড়ার হাট।
কারবারিদের মতে, গতবছর ঈদ-পরবর্তী প্রথম হাটে রাজারহাটে প্রায় পাঁচ কোটি টাকার চামড়া বেচাকেনা হয়েছিল। এবার সেখানে বিক্রি হয়েছে এক কোটি টাকার মতো।

আরও পড়ুন