প্রেমিকার গলায় ফাঁস, প্রেমিক ট্রেনের নিচে

আপডেট: 10:07:18 10/08/2018



img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। তারা প্রেমিক-প্রেমিকা ছিলেন বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র বলছে।
এরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয় ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র রোকনুজ্জামান এবং মুনতা হেনা। বৃহস্পতিবার রাতে মাত্র আধাঘণ্টার ব্যবধানে এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মতি মিয়া রেলগেট এলাকায় পোড়াদহ থেকে গোয়ালন্দগামী শাটল ট্রেনের কাটা পড়ে রোকনুজ্জামান নামে একজনের মৃত্যু হয়। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। এর আধাঘণ্টা আগে ঝিনাইদহ শহরে ঝিনুক টাওয়ারের পঞ্চম তলায় নিজ শয়ন কক্ষে একই বিভাগের ছাত্রী মুনতা হেনা ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।
প্রক্টর জানান দুইজনের মধ্যে চেনা-জানা ছিল। তবে কী কারণে তারা আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি।
তবে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রগুলো জানায়, রোকনুজ্জামান ও মুনতা হেনা প্রেমিক-প্রেমিকা। প্রেমিকার আত্মহত্যার খবর পেয়ে প্রেমিকও জীবন দেন। তাদের মধ্যে ঠিক কী নিয়ে সমস্যা হয়েছিল, তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেননি সহপাঠীরা।
রোকনুজ্জামানের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা এলাকায়। আর মুনতা হেনার বাড়ি সাতক্ষীরা জেলায়।
পোড়াদহ জিআরপি থানার উপ-পরিদর্শক আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, রোকনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরিবারের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন