বরখাস্ত সেনা কর্মকর্তাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

আপডেট: 01:59:51 09/08/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : বরখাস্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল হাসিনুর রহমানকে ঢাকার পল্লবীতে বাসা থেকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ করেছে তার পরিবার।
হাসিনুর রহমান সেনাবাহিনীকে চাকরির সময় রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় দণ্ডিত হয়ে পাঁচ বছরের জেল খেটে ২০১৪ সালে মুক্তি পেয়েছিলেন। ফেসবুক প্রোফাইলে তার নামের শেষে ‘বীরপ্রতীক’ লেখা আছে।
হাসিনুর এক সময় র‌্যাব-৫ ও র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক ছিলেন। তিনি বিজিবিতেও ছিলেন কিছু কাল।
বুধবার রাত দশটার দিকে পল্লবীতে মিরপুর ডিওএইচএসের বাসার সামনে থেকে হাসিনুরকে তুলে নেওয়া হয় বলে তার শ্যালক ওয়াকিল আহমেদ জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, “হাসিনুর তার এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে যাচ্ছিলেন। বাসার নিচে ডিবি পুলিশের জ্যাকেট পরা কয়েকজন তাকে ধরে নিয়ে যায়।”
কারা তাকে হাসিনুরকে তুলে নিয়েছে, এ বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত না হলেও ওয়াকিলের ধারণা, গোয়েন্দা পুলিশই তাকে নিয়ে গেছে।
বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক কর্মকর্তাকে ফোন করা হলেও কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
পল্লবী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মইনুল কবীর বলেন, “হাসিনুর রহমানকে তুলে নেওয়ার খবর আমরা পেয়েছি। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা কাজ করছেন।”
চাকরি জীবনে হাসিনুর সর্বশেষ আর্মি টেইনিং অ্যান্ড ডকট্রিন কমান্ডে কর্মরত ছিলেন। রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর চাকরি হারিয়েছিলেন তিনি।
নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ঘিরে দেশেকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র হয়েছিল বলে সরকার দাবি করার পর দুদিন আগে প্রখ্যাত আলোকচিত্রী শহিদুল ইসলামকেও এভাবে তুলে নেওয়া হয়েছিল। পরে তাকে তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে নেয় ডিবি।
সূত্র : বিডিনিউজ

আরও পড়ুন