বর্ষাকালীন রোগ

আপডেট: 01:58:41 17/08/2017



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : বর্ষাকাল। তাই প্রতিদিনই প্রায় বৃষ্টি হচ্ছে। ভ্যাপসা গরম থেকে বৃষ্টি স্বস্তি দিলেও জমা পানি, ঠান্ডা লাগা, জ্বরের মতো সমস্যাও বাড়ছে। বৃষ্টি যতই উপভোগ করুন, বর্ষায় রোগের হাত থেকে সাবধান থাকতেই হয়। জেনে নিন যে রোগগুলো বর্ষায় সবচেয়ে বেশি হয়।
১. ম্যালেরিয়া : বর্ষায় সবচেয়ে বেশি যে রোগ দেখা যায় তা হলো ম্যালেরিয়া। বর্ষার জমা পানি থেকে মশাবাহিত রোগ ম্যালেরিয়া বাচ্চা থেকে বড় সকলেরই হতে পারে। এই ম্যালেরিয়ায় যদি ম্যালিগন্যান্ট হয়ে যায় তা থেকে মৃত্যুও হতে পারে।
২. ডেঙ্গু : ম্যালেরিয়ার মতো মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু। বর্ষায় আমাদের দেশে ডেঙ্গুর প্রভাবে বহু মানুষের মৃত্যু হয়। অতিরিক্ত জ্বর, গায়ে ব্যথা, দুর্বলতা বড় সমস্যা ডেকে আনতে পারে।
৩. ডায়রিয়া : বর্ষায় বাইরের খাবার যত কম খাওয়া যায় ততই ভালো।
বাইরের খোলা খাবার, অপরিশোধিত পানি থেকে ডায়রিয়ার প্রকোপ বাড়ে। শিশুদের ডায়রিয়া থেকে ডিহাইড্রেশন হয়ে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। 
৪. চিকুনগুনিয়া : সংক্রমিত এডিস অ্যালবোপিকটাস মশার কামড়ে চিকুনগুনিয়া হয়। বর্ষার জমা পানিতে এই মশা ডিম পাড়ে ও দিনের আলোয় কামড়ায়।
৫. টাইফয়েড : সালমোনেলা টাইফোসা ভাইরাসের প্রকোপ বর্ষাকালে খুব বেড়ে যায়। অপরিশোধিত পানি, অপরিচ্ছন্ন পানি থেকে টাইফয়েডের সংক্রমণ ছড়ায়। দীর্ঘ সময় তাপমাত্রা না নামলে টাইফয়েড থেকে হয়ে যেতে পারে বড়সড় ক্ষতি।
৬. ভাইরাল ফিভার : যে কোনো মওসুমেই ভাইরাল ফিভার হতে পারে। তবে বর্ষায় ভাইরাল ফিভারের প্রকোপ সবচেয়ে বেশি হয়। জ্বর, গায়ে ব্যথা, দুর্বলতার সঙ্গে এই জ্বর ৩-৭ দিন পর্যন্ত স্থায়ী হয়।  
৭. কলেরা : পরিচ্ছন্নতার অভাব ও দুর্বল হাইজিনের কারণে খাবার, পানি সংক্রমিত হলে দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ে কলেরা। কলেরা ভয়াবহ আকার ধারন করলে তা প্রাণঘাতীও হতে পারে।
৮. লেপ্টোসিরোসিস : এই রোগ ওয়েইল’স সিন্ড্রোমা নামে পরিচিত। সংক্রমিত পশুদের প্রস্রাবের মাধ্যেম পানি, মাটি থেকে মানুষের শরীরে সংক্রমণ ছড়ায়। মাথা যন্ত্রণা, জ্বর, প্রদাহ এই রোগের লক্ষণ।
৯. জন্ডিস : বর্ষায় অপরিশোধিত পানি থেকে হেপাটাইটিস ভাইরাসের সংক্রমণ হয়। হেপাটাইটিসের সংক্রমণে রক্তের বিলিরুবিনের মাত্রা বেড়ে গিয়ে জন্ডিস দেখা দেয়। এই সময় বাইরের পানি ভুলেও খাবেন না। 
১০. ইনফেকশন : বর্ষায় রাস্তার খোলা খাবার থেকে গ্যাস্ট্রোএন্টারাইটিস বা পেটের ইনফেকশনের সমস্যা প্রায়ই হয়ে থাকে।
সূত্র : কালের কণ্ঠ