বাঘারপাড়ায় দেবরের হাতে ভাবি খুন

আপডেট: 06:14:49 14/04/2019



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের বাঘারপাড়ায় দেবরের হাতে জিনিয়া ইয়াসমিন তুলি (২৪) নামে এক গৃহবধূ খুন হয়েছেন।
দুই সন্তানের জননী তুলি বাঘারপাড়া উপজেলার পান্তাপাড়া গ্রামের জুলফিকার আলীর স্ত্রী।
এ ঘটনায় স্থানীয় থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।
বাঘারপাড়ার থানার ইনসপেক্টর শেখ ওহিদুজ্জামান জানান, শনিবার (১৩ মার্চ) সন্ধ্যায় পারিবারিক কলহের জের ধরে তুলিকে ছুরিকাঘাত করেন তার দেবর শাহাবুদ্দিন। আহত অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ রোববার সকাল নয়টার দিকে তিনি মারা যান।
স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) তুলিকে মারপিট করে তার দেবর। এ ঘটনা জানার পর তার বাবা এসে তাকে নিয়ে যান। শনিবার (১৩ মার্চ) তুলির শাশুড়ি ফোন করে জানান, তার বড় ছেলে (জিনিয়ার বড় ছেলে) অসুস্থ। ওইদিন সন্ধ্যায় তুলি তার বাবাকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি আসেন। তিনি বাড়ি পৌঁছালে একটি ঘরে আটকে দেবর শাহাবুদ্দিন তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়।
ইনসপেক্টর শেখ ওহিদুজ্জামান বলেন, গৃহবধূর পিঠের আট স্থানে, বাম হাতের দুই জায়গায়, পেটে এবং বামপায়ে মোট ১৩ স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফুজ্জামান বলেন, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে অঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।
এ ঘটনায় বাঘারপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন তুলির বাবা শহিদুল ইসলাম। মামলা নম্বর ১৩/ ১৪.০৪.১৯।

আরও পড়ুন