ব্যাটিং ব্যর্থতায় লজ্জার হার

আপডেট: 02:48:11 10/02/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঢাকা টেস্ট জিততে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য ছিল ৩৩৯ রান। এই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার তামিম ইকবালের উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। এরপর কিছুটা ঘুরেও দাঁড়িয়েছিল স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হক জুটি ৪৬ রান যোগ করেছিল। কিন্তু দলীয় ৪৯ রানের মাথায় ইমরুল ফিরে যান। কিছুটা আশা জাগিয়ে লাঞ্চের পর ফিরে যান মুমিনুল হকও (৩৩)। উইকেটে বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি লিটন দাস।
লাঞ্চের পর উইকেট হারানোর যে হিড়িক শুরু হয় এতে যোগ হয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লহও। তিনি ব্যক্তিগত ৬ রানের মাথায় আকিলা ধনঞ্জয়ার শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন। কিছুটা আশা ছিল সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের ওপর। তিনি ২৫ রান করে উইকেটে অনেকটাই সেট ছিলেন। তিনিও পারেননি বাংলাদেশের চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে হাল ধরতে। এরপর কেউই পারেননি দলের বিপর্যয়ে রুখে দাঁড়াতে। তাই ১২৩ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ২১৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারের লজ্জা পায় স্বাগতিকরা।
বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে ধস নামান লঙ্কান দুই স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়া ও রঙ্গনা হেরাথ। ধনঞ্জয়া মাত্র পাঁচ ওভার বল করে ২৪ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট তুলে নেন। আর ১১.৩ ওভারে ৪৯ রান খরচায় পেয়েছেন চার উইকেট।
এর আগে প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা করেছিল ২২২ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ করেছিল ১১০ রান। ১১২ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। সেখানেও সংগ্রহটা খুব বেশি বড় করতে পারেনি লঙ্কান ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও বল হাতে জ্বলে উঠেছিলেন তাইজুল ইসলাম।  এবার তিনি নিয়েছেন চারটি উইকেট। তিনটি উইকেট পেয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান।
এর আগে প্রথম ইনিংসেও ব্যাট হাতে সেভাবে জ্বলে উঠতে পারেনি মাহমুদউল্লাহর দল। অলআউট হয়ে গিয়েছিল মাত্র ১১০ রানে। অন্য ব্যাটসম্যানরা যেখানে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন, সেখানে ৩৮ রানে অপরাজিত থেকে বাংলাদেশের পক্ষে একাই লড়েছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ।
দলীয় মাত্র ১২ রান সংগ্রহ করতেই বাংলাদেশ হারিয়েছিল প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, মুমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিমকে। দিনের শেষ পর্যায়ে ইমরুল কায়েসও ফিরেছিলেন ১৯ রান করে। গতকাল দ্বিতীয় দিনের শুরুতে লিটন দাস সাজঘরে ফিরে গেছেন ২৫ রান করে। ১৭ রান করে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ঘুরে দাঁড়ানোর। কিন্তু সেই ১৭ রানেই সাজঘরে ফিরতে হয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ককে। সাব্বির রহমান আউট হয়েছেন শূন্য রানে। ১ রান করে এসেছে আবদুর রাজ্জাক ও তাইজুল ইসলামের ব্যাট থেকে।
সূত্র : এনটিভি