ভদ্রায় শতাধিক যাত্রী নিয়ে ট্রলারডুবি, অধিকাংশ উদ্ধার

আপডেট: 06:13:01 02/09/2016



img

খুলনা অফিস : খুলনার ভদ্রা নদীতে শতাধিক যাত্রী নিয়ে একটি ইনজিনচালিত ট্রলার ডুবে গেছে। ট্রলারের অধিকাংশ যাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন।
উদ্ধার হওয়া এক বাবা ও তার মেয়েকে আশংকাজনক অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খুলনার বটিয়াঘাটা ও পাইকগাছা সীমান্তের ভদ্রা নদীর মাঝামাঝি ট্রলারটি ডুবে যায়।
খুলনা ফায়ার সার্ভিসের দুটি ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে। বিশ্বজিত হালদার (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন বলে তার স্বজনরা দাবি করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পাইকগাছা উপজেলার ফুলবাড়ি ঘাট থেকে শতাধিক যাত্রী নিয়ে একটি ট্রলার বেলা ১২টার দিকে বটিয়াঘাটার বারোয়াড়িয়ার উদ্দেশে যাত্রা করে। পুরনো ও ত্রুটিপূর্ণ নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের কারণে ভদ্রা নদীর মাঝামাঝি এসে ট্রলারটি ডুবে যায় বলে বলা হচ্ছে। এ সময় নদীতে থাকা অন্যান্য ট্রলার ও নৌকা নিয়ে মাঝিরা এসে তাৎক্ষণিকভাবে অধিকাংশ যাত্রীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হন।
খবর পেয়ে খুলনা ফায়ার সার্ভিসের দুটি ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান শুরু করে। অধিকাংশ যাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও পাইকগাছা উপজেলার কালিনগর গ্রামের বাসিন্দা বিশ্বজিত হালদার (৪০) নিখোঁজ রয়েছেন বলে তার স্বজনরা জানিয়েছেন।
বটিয়াঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মু. বিল্লাল হোসেন খান এবং পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উদ্ধার তৎপরতা পর্যবেক্ষণ করেন।
খুলনা ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক লিয়াকত হোসেন জানান, দুটি ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছে। কতজন নিখোঁজ রয়েছেন, তা এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে একজন নিখোঁজের খবর রয়েছে। নদীতে প্রবল ¯্রােতের কারণে অভিযান ব্যাহত হচ্ছে।
এদিকে, নদী থেকে উদ্ধারের পর পাইকগাছা উপজেলার লক্ষ্মীখোলা গ্রামের বাসিন্দা গোবিন্দ গাইন (৪০) ও তার মেয়ে চুমকি গাইন (১০) অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের আশংকাজনক অবস্থায় পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় দেলুটি ইউপি চেয়ারম্যান রিমন মন্ডল।
স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, ট্রলারে ৪০ থেকে ৫০ জন ধারণ ক্ষমতা থাকলেও শতাধিক যাত্রী বহন করা হচ্ছিল। ফলে প্রবল ¯্রােতে পড়ে সেটি ডুবে যায়।
ঘাটটি বটিয়াঘাটার ইজারাদার হাশেম মলঙ্গী পরিচালনা করেন।

আরও পড়ুন