মণিরামপুরে চড়কপূজায় ফের দুর্ঘটনা, ‘সন্ন্যাসী’র মৃত্যু

আপডেট: 03:31:35 14/04/2018



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে চড়কপূজার খেজুরগাছ থেকে পড়ে প্রান্ত বিশ্বাস (১৬) নামে এক কিশোর ‘সন্ন্যাসী’র মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তার মৃত্যু হয়।
এরআগে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে গাছ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছিল প্রান্ত। সে উপজেলার বালিধা-পাঁচাকড়ি গ্রামের বানেশ^র বিশ্বাসের ছেলে। এবার বালিধা-পাঁচাকড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল ছেলেটি।
কাকাতো ভাই স্থানীয় আট নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সুধন্য বিশ্বাস জানান, এবারই প্রথম চড়কপূজার ‘সন্ন্যাসী’ হয় প্রান্ত। পূজার রীতি অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে উপবাস করে সে। শুক্রবার বিকেলে বালিধা-পাঁচাকড়ি রাজবংশীপাড়া মহাশ্মশান-সংলগ্ন খেজুর গাছে উঠছিল প্রান্ত। ‘সন্ন্যাসী’দের মধ্যে প্রতিযোগিতা করে আগে উঠতে গিয়ে গাছের শীর্ষ থেকে পড়ে মাথায় ও বুকে প্রচণ্ড আঘাত পায় প্রান্ত। খুলনা গাজী মেডিকেলে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে আটটার দিকে তার মৃত্যু হয়।
নেহালপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুস সাদত খেজুরগাছ থেকে পড়ে প্রান্ত নামে এক কিশোরের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
গতবছরও চড়কপূজায় মণিরামপুরে খেজুরগাছ থেকে পড়ে ‘সন্ন্যাসী’ হতাহতের ঘটনা ঘটেছিল।
চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে হিন্দু অধ্যুষিত এলাকায় চড়কপূজা হয়ে থাকে। এই পূজায় খেজুরগাছে উঠে নানা কসরত দেখান কিছু লোক; যাদের ‘সন্ন্যাসী’ বলা হয়। তারা গাছ থেকে খেজুর পেড়ে তা ছিটিয়েও দেন। খেজুরকে দেবতা মহাদেব বা শিবের খাদ্য হিসেবে মনে করা হয়। যশোরের মণিরামপুর এলাকায় বেশ কয়েকটি স্থানে চৈত্র সংক্রান্তিতে এই পূজা হয়; যাকে স্থানীয়ভাবে ‘খাজুর ভাঙা উৎসব’ও বলা হয়।