মণিরামপুরে ২৯টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

আপডেট: 07:52:04 31/01/2018



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে সরকারি জমি থেকে ২৯টি অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করেছেন।
বুধবার দুপুরে উপজেলার নেহালপুর কালিবাড়ি মোড়ে চলে এই উচ্ছেদ অভিযান। এতে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারী। এসময় মণিরামপুর থানার এসআই প্রশান্তকুমার, নেহালপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নায়েব আমিনুল ইসলাম, সার্ভেয়ার আব্দুল মান্নান উপস্থিত ছিলেন।
উচ্ছেদ দোকান মালিকরা হলেন মোক্তার আলী (সবজি), ইসলাম দফাদার (মাংস), উখতেয়ার গাজী (চা), মোন্তাজ গাজী (চা), আব্দুল হাই (ওষুধ), ইকবাল হোসেন (ইলেক্ট্রনিক্স), গোবিন্দ হালদার (সূতা), আমিনুর রহমান (চা), গোলাম মোস্তফা (চা), রিপন হোসেন (চা), ছিরমান আলী (চা), বাবর আলী (খাবার হোটেল), আলামিন গাজী (চা), বিপুলচন্দ্র (মুদি), মিলন দাস (সেলুন), মুজিবুর রহমান (ফল), শহিদুল্লাহ গাজী (ফল), আব্দুল হক (সবজি), সফিকুল ইসলাম (কসমেটিক্স), জুলফিকার আলী (ফল), জিন্নাত আলী (কসমেটিক্স), আবুল কালাম আজাদ (হোটেল), আব্দুল করিম মোল্যা (চা), উজ্জ্বল ঘোষ (চা), আব্দুল ওহাব (পান)। এছাড়া উচ্ছেদের আওতায় আসে মোটরসাইকেল স্ট্যান্ড, থ্রি-হুইলার স্ট্যান্ড, টেগার স্ট্যান্ড ও ইটালি স্ট্যান্ড।
মণিরামপুর ভূমি অফিস সূত্র জানায়, স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী ওই মোড়ের পুকুরপাড়ের প্রায় এক একর জমি বহু বছর ধরে অবৈধভাবে দখল করে সেখানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে কারবার চালিয়ে যাচ্ছিলেন। দোকানগুলো উচ্ছেদের জন্য গত বছরের ৫ এপ্রিল প্রথমে তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়। তারা কর্ণপাত না করায় ওই মাসের ১৩ তারিখে জেলা প্রশাসকের দপ্তরে উচ্ছেদ অভিযানের আবেদন করা হয়। এরপর জেলা প্রশাসকের দপ্তর থেকে কয়েকদফা দোকান মালিকদের নোটিস করা হয়েছে। তাও তারা মানেননি।
মণিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হুসাইন মোহাম্মদ আল-মুজাহিদ বলেন, ‘অবৈধ স্থাপনাগুলো তুলে নেওয়ার জন্য দোকানিদের শতাধিক বার নোটিস করা হয়। কিন্তু তারা তাতে কান দেননি। ফলে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারীর নেতৃত্বে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে।’