মহেশপুরে কারখানার ২৪-২৫ শ্রমিক হাসপাতালে

আপডেট: 06:24:11 01/10/2018



img
img
img

কাজী মৃদুল, কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) : গত দুই দিনে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালে একই প্রতিষ্ঠানের কর্মরত ১২ জন শ্রমিক ভর্তি হয়েছেন। ঠিক কী রোগে তারা আক্রান্ত, ডাক্তাররা এখনো তা নিশ্চিত করতে পারেননি।
ওই প্রতিষ্ঠানের আরো ১২ থেকে ১৪ জন বিভিন্ন হাসপাতল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ও মহিলা রয়েছেন। বয়সে সবাই তরুণ- ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে।
কোটচাঁদপুর হাসপাতালের দায়িত্বরত ডাক্তার শুভ্র বলেন, ‘গত দুই দিনে ১২ জন রোগী একই ধরনের রোগে আক্রান্ত হয়ে এ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। রোগীর শারীরিক সমস্যার সাথে আমরা রোগের কোনো লক্ষণ খুঁজে পাচ্ছি না। মনে হচ্ছে টেনশনের পাশাপাশি অতিরিক্ত গরমে এমনটি হতে পারে। তবে আমরা চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে রোগীরা অনেকটাই সুস্থ। আমরা রোগ সম্পর্কে জানার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’
অজ্ঞাত রোগে ভর্তি হওয়া তাসমিন (২৩) বলেন, ‘‘আমরা সবাই মহেশপুর উপজেলার খালিশপুর ‘ইকো ইলেকট্রনিক্স ডিজিটাল মিটার কোম্পানি’তে কাজ করি। শনিবার সকালে ওই প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে করতে প্রায় একই সঙ্গে ৭-৮ জন শ্রমিকের হঠাৎ প্রচণ্ড মাথা ও ঘাড় ব্যথা শুরু হয়। সেই সাথে সমস্ত শরীর অবশ হয়ে আসে। অনেকে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। সাথে সাথে আমাদেরকে কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়।’’
সব মিলিয়ে এ রোগে গত দুইদিনে ২৩-২৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানান রোগী তাসমিন।
খালিশপুর ইকো ইলেকট্রনিক্স ডিজিটাল মিটার কোম্পানির ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘কী কারণে এমনটি হলো বলতে পারবো না। হঠাৎ করে ১০-১২ জন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদেরকে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাদের অবস্থা ভালো। এমনটি এ প্রতিষ্ঠানে এর আগে কখনো হয়নি।’
কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি শ্রমিকরা হচ্ছেন, নাছিমা (২০), শাহিন (২০), তাসমিন (২৩), পারভীন (২৪), শাহিদা (২৩), সীমা (২০), শিরিনা (২৪), মাহফুজা (২৫), জেসমিন (২৪), জহুরা (২৫), কামরুল (২৪) এবং সাইফুল ইসলাম। রোগে আক্রান্ত অন্যরা এলাকার বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানিয়েছে তাদের স্বজনেরা।

আরও পড়ুন