মহেশপুরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ

আপডেট: 12:38:27 04/12/2017



img

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : যৌতুকের টাকার দাবিতে জুলিয়া খাতুন (১৯) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করার অভিয়োগ উঠেছে স্বামী জাহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে।
জুলিয়া খাতুনের পরিবারের অভিযোগ যৌতুকলোভী স্বামী জাহিদুল ইসলাম টাকা না পেয়ে স্ত্রী জুলিয়া খাতুনতে রোববার বিকেলে নিজ বাড়িতে পিটিয়ে ও গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করেছেন।
মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত ডাক্তার মাহাবুব আলম জানান, জুলিয়াকে মৃত অবস্থায় সন্ধ্যা ছয়টার সময় হাসপাতালে আনা হয়েছে।
জুলিয়া খাতুনের ভগ্নিপতি বগা গ্রামের শফিকুল ইসলাম জানান, মহেশপুর উপজেলার শিবানন্দপুর গ্রামের জয়নাল হোসেনের মেয়ে জুলিয়ার সঙ্গে তিন বছর আগে বিয়ে হয় একই উপজেলার খড়োমান্দারতলা গ্রামের শিক্ষক জাহিদুল ইসলামের।
তিনি বলেন, ‘বিয়ের পর জাহিদুল ইসলাম কয়েকবার যৌতুকের টাকার জন্য জুলিয়া খাতুনকে মারপিট করেছে। আমরা জাহিদুলকে মোটরসাইকেলসহ কয়েক বার টাকাও দিয়েছি। কিন্তু সে আরো টাকা দাবি করে আসছিল।’
মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আহাম্মেদ কবির বলেন, ‘আমরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি। লাশের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট এলে বোঝা যাবে কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।’
তবে এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক জাহিদুলের বক্তব্য জানা যায়নি।

আরও পড়ুন