মিরাজের উল্লাস দীর্ঘস্থায়ী হয়নি

আপডেট: 06:14:48 01/02/2018



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : স্পিন স্বর্গে সফল হলেন না বাংলাদেশের বোলাররা। অবশ্য শুরুটা হয়েছিল অফস্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের উল্লাসে। কিন্তু সেটা বেশিক্ষণ থাকেনি। ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ও কুশল মেন্ডিসের জুটি ভাঙতে পারেননি তাইজুল ইসলাম, সানজামুল ইসলাম ও মিরাজের স্পিন আক্রমণ। তাদের ১৮৭ রানের জুটিতে বাংলাদেশকে অস্বস্তিতে রেখেছে শ্রীলঙ্কা। চট্টগ্রাম টেস্টে ১ উইকেটে ১৮৭ রানে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে সফরকারীরা।
প্রায় দুইশ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ার পথে ধনঞ্জয়া করেছেন সেঞ্চুরি, হাফসেঞ্চুরি পান কুশল। ১০৪ রানে অপরাজিত ধনঞ্জয়া। কুশল খেলছেন ৮৩ রানে।
শ্রীলঙ্কা রানের খাতা খোলার আগেই হারায় প্রথম উইকেট।  বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ৫১৩ রানের জবাব দিতে গিয়ে ইনিংসের তৃতীয় ওভারে হোঁচট খায় শ্রীলঙ্কা। মিরাজ তার প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে দিমুথ করুনারত্নেকে ইমরুল কায়েসের ক্যাচ বানান। দুই ওভার পরই দ্বিতীয় উইকেট পেতে পারতো বাংলাদেশ। কিন্তু মোস্তাফিজুর রহমানের ওভারে মেন্ডিসের ব্যাট ছুঁয়ে বল ইমরুল কায়েসের হাত ফসকে যায়। মাত্র ৪ রানে জীবন পাওয়া কুশল ৯১ বলে করেন ফিফটি, চতুর্থ সেঞ্চুরি হাতছানি দিচ্ছে তাকে।
তবে ধনঞ্জয়া টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পান দিন শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে। ১২২ বলে ১৫ চারে ১০০ করেছেন এই ব্যাটসম্যান। এই জুটি ভাঙতে তিনবার রিভিউ নিয়েও সফল হননি তাইজুল ইসলাম।
এর আগে ৪ উইকেটে ৩৭৪ রানে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। ডাবল সেঞ্চুরি করতে পারেননি ১৭৫ রানে অপরাজিত থেকে খেলতে নামা মুমিনুল হক। ১৭৬ রানে তাকে এদিনের প্রথম শিকার বানান রঙ্গনা হেরাথ। তবে মাহমুদউল্লাহ অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলে দলের স্কোর ৫০০ পার করেন।
৮৩ রানে অপরাজিত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। তার সঙ্গে মিরাজ ২০ ও সানজামুল ইসলাম ২৪ রানের উল্লেখযোগ্য ইনিংস খেলেন দ্বিতীয় দিন। তারা অলআউট হয় ৫১৩ রানে।
সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন

আরও পড়ুন