মুস্তাফিজুর রহমান মুস্তাকের সময়ের ছড়া

আপডেট: 01:43:58 30/11/2016



img

১.
রোহিঙ্গাদের নেইতো রেহাই
থাকলে সু চি চেয়ারে
মানুষ নামে এই বাঘিনী
একটুও নেই ফেয়ারে।

নোবেল দিলো তাকে যারা
পাচ্ছে এখন শরম
হয়তো ওটা কেড়ে নিতে
করছে পূরণ ফরম।

কী অপরাধ রোহিঙ্গাদের
কীইবা খারাপ কর্ম?
সবার উপর সত্য মানুষ
এটাই বড় ধর্ম।


২.
হরিণ বলে বাঘ মামাকে
একটু খানি ভাবো
বন যদি না থাকে তবে
আমরা কোথায় যাবো?

বললো মামা ভাববে যারা
তারা হাটের ছাগল
আমরা ভেবে কী লাভ আছে
বুঝিস না ক্যান পাগল।

ওদের কাছে তুচ্ছ হয়ে
ক্ষুদ্র হলাম অতি
সুমতিতে ফিরলে ওরা
একটা হবে গতি।


৩.
চার বছরের শিশু
প্রতি রাতেই বিছানাতে
দিচ্ছে করে হিশু

গায়ে জামা পরায় যে মা
পায়েতে লাল মোজা
এতোটুকুন শিশুর ঘাড়ে
চাপায় বইয়ের বোঝা।

নেইতো সময় খেলাধুলার
সারাটা দিন পড়া
এই শিশুকে সঠিকভাবে
ক্যামনে হবে গড়া?


৪.
রিকশাওয়ালা রিকশা চালায়
ভ্যানওয়ালা ভ্যান
কুড়ি টাকা ভাড়া হলো
চৌদ্দ টাকা ক্যান?

রিকশাওয়ালার সাথে
ভাড়া নিয়ে ঝগড়া বাধে
সকাল বিকাল রাতে

চুক্তি যতই থাকুক না ক্যান
পৌরসভার সাথে
তবু বেটা মানবে না তা
নানান অজুহাতে
তাইতো আছি আমরা এখন
বড্ডো ঝামেলাতে।


৫.
শেয়ারবাজার শেয়ার
লুটে পুটে নিয়ে গেছে
যদ্দূর যা নেয়ার।

মুখ থুবড়ে তাইতো পড়ে
খাইছে যেন বিয়ার।

টাকার শোকে ধুকে ধুকে
করলো বরণ মৃত্যুটাকে
তাও নেয় না কেয়ার
শেয়ারবাজার শেয়ার।

প্যাকেজ দিলো প্রণোদনা
আসলে সব প্রতারণা
কয় না কথা সে আর
শেয়ারবাজার শেয়ার।

ফটকাবাজি কইছে মালে
অভিশাপ দি ওর কপালে
মরবে ধুকে তিলে তিলে
আন্দোলনে মতিঝিলে
ছুড়লো যে গ্যাস টিয়ার
শেয়ারবাজার শেয়ার।