ময়লা ফেলার বালতি হাতে দরজায় জেলা প্রশাসক

আপডেট: 10:34:46 12/03/2018



img
img

মৌসুমী নিলু, নড়াইল : ‘আমি জেলা প্রশাসক এসেছি আপনাদের কাছে। এই বালতিটা যত্ন করে রাখবেন। এই বালতিতে আপনাদের বাসাবাড়ির অপ্রয়োজনীয় ময়লা রাখবেন। আমাদের লোক এসে আপনাদের বাড়ি থেকে সেই ময়লা নিয়ে যাবে।’
‘আমি আপনাদের একটা করে বালতি দিয়ে যাচ্ছি। আপনারা নিজ থেকে আর একটা বালতি কিনে নিবেন। একটা বালতিতে পচনশীল ময়লা রাখবেন আর একটা বালতিতে অপচনশীল ময়লা রাখবেন। পচনশীল ময়লাদিয়ে বায়োগ্যাস এবং জৈব সার তৈরি করা হবে। আর অপচনশীল ময়লা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট স্থানে ডাম্পিং করা হবে।’
এই বক্তব্য নড়াইলের জেলা প্রশাসক মো. এমদাদুল হক চৌধুরীর। ‘গ্রিন নড়াইল ক্লিন নড়াইল’ গড়ার লক্ষে আজ সোমবার বিকেলে বিনা মূল্যে বালতি বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রচারণার অংশ হিসেবে বালতি নিয়ে পৌর এলাকায় বাড়িতে বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন জেলা প্রশাসক।
এসময় জেলা প্রশাসকের সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. সিদ্দিকুর রহমান, নড়াইল পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী জহিরুল হক প্রমুখ।
বাড়ি বাড়ি বালতি বিতরণকালে জেলা প্রশাসক আরো বলেন, ‘‘নড়াইল জেলাকে ইতিমধ্যে ভিক্ষুকমুক্ত করা হয়েছে। ‘গ্রিন নড়াইল ক্লিন নড়াইল’ গড়ার লক্ষে এখন কাজ করছে নড়াইল জেলা প্রশাসন। নড়াইল পৌরসভার প্রতিটা পরিবারকে একটি করে ময়লা রাখার বালতি বিনামূল্যে দেওয়া হবে। পরিবারের অপ্রয়োজনীয় ময়লা এখানে সেখানে ফেলে পরিবেশ নষ্ট করা যাবে না। এ বিষয়ে সকলের মাঝে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। যদি কোনো পরিবার ইচ্ছা করে এই নির্দেশনা অমান্য করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এসময় ‘গ্রিন নড়াইল ক্লিন নড়াইল’ গড়তে সবার সহযোগিতা কামনা করে জেলা প্রশাসক।